আজকের সর্বশেষ

করোনার টিকা নেওয়ার আগে-পরে কি পেইনকিলার খাওয়া যাবে?

Dhaka Post Desk

লাইফস্টাইল ডেস্ক

৩১ মার্চ ২০২১, ১৩:২৩

করোনার টিকা নেওয়ার আগে-পরে কি পেইনকিলার খাওয়া যাবে?

করোনাভাইরাসের প্রকোপ আবারও বেড়ে চলেছে। এদিকে আশার কথা হলো, করোনার টিকা নিচ্ছেন অনেকে। এতে করে মরণঘাতি এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই সহজ হবে। করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার পরে কারও কারও ক্ষেত্রে হাতে সামান্য ব্যথা দেখা দিতে পারে। অনেকের ক্ষেত্রে টিকা নেওয়ার স্থান কয়েকদিন পর্যন্ত ফুলে থাকতে পারে। তবে এতে ভয়ের কোনো কারণ নেই। এই টিকা নিলে অন্যান্য টিকার মতোই সামান্য ব্যথা হতে পারে। তবে অনেকে আগ বাড়িয়ে পেইনকিলার খেয়ে নিচ্ছেন ব্যথা এড়ানোর জন্য। এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা। টিকা নেওয়ার আগে কিংবা পরে কোনোরকম ওষুধ খাওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পেইনকিলার বা ব্যথানাশক ওষুধ গ্রহণ করলে তা আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। অপরদিকে করোনার টিকা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর চেষ্টা করে। পেইনকিলার খাওয়ার পরপর টিকা নিলে দেখা দিতে পারে সমস্যা। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার কারণে করোনার টিকা ধরে নেয় শরীরে করোনাভাইরাস রয়েছে তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম। তখন টিকা সেভাবেই কাজ করে। ফলে পেশি ব্যথা, জ্বর বা অন্যান্য সমস্যা হতে পারে।   

টিকা নেওয়ার আগে বা পরে চিকিৎসকেরা তখনই পেইনকিলার খাওয়ার পরামর্শ দেন যখন খুব বেশি সমস্যা হওয়ার ভয় থাকে। এছাড়া পেইনকিলার এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়। ভ্যানডার্বিল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক ব্যাধির বিশেষজ্ঞ উইলিয়াম স্ক্যাফনার জানান, যদি প্রয়োজন পড়ে তবে টিকা নেওয়ার পরে পেইনকিলার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়, আগে নয়।

ইউএস সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন একটি গাইডলাইন প্রকাশ করে। যেখানে বলা হয়, করোনার টিকা নেওয়ার আগে পেইনকিলার খাওয়া উচিত, পরেও খাওয়া যেতে পারে। তবে এর আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি বলেও উল্লেখ করা হয়। 

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসিস্ট জোনাথন ওয়াতানেব জানান, আপনি যদি আগে থেকেই প্রতিদিন এ ধরনের কোনো ওষুধ খেয়ে থাকেন তবে টিকা নেওয়ার জন্য তা বন্ধ করা যাবে না। জরুরি মনে হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। চিকিৎসক সমর্থন দিলেই কেবল ওষুধ গ্রহণ বা বন্ধ করা যাবে। টিকা নেওয়ার পরে ব্যথা বোধ করলে টিকার স্থানে বরফ দেওয়া বা ঠান্ডা কিছু ব্যবহারের পরামর্শও দেওয়া হয়। জ্বর অনুভব করলে বেশি করে পানি পান ও ফলের রস পান করতে বলা হয়। 

এইচএন/এএ

Link copied