করোনাভাইরাস : গরম পানির ভাপ কি সত্যি উপকারী?

Dhaka Post Desk

লাইফস্টাইল ডেস্ক

০২ মে ২০২১, ০৯:৫৫ এএম


করোনাভাইরাস : গরম পানির ভাপ কি সত্যি উপকারী?

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক কমছেই না। কারণ প্রাণঘাতি এই মহামারির তাণ্ডবলীলা এখনও থামেনি। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে দেখা দিয়েছে ভয়াবহ রূপ। অদৃশ্য এই শত্রুর আক্রমণে অসহায়ের মতো আত্মসমর্পণ করছে মানুষ। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। আমাদের দেশেও করোনার আক্রমণ দুর্বল নয়। বরং সচেতন না হলে তা আরও বেশি শক্তিশালী হয়ে দেখা দেবে। এমন অবস্থায় আতঙ্কিত হওয়া অস্বাভাবিক নয়। তাই সামান্য হাঁচি-কাশি দেখা দিলেও আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। 

এদিকে সংক্রমণের মতোই বেড়ে চলেছে নানা গুজব। করোনা থেকে বাঁচার উপায় হিসেবে বিভিন্নজন বিভিন্নভাবে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন। তার কোনটা সত্যি, কোনটা নয় তা বোঝাও মুশকিল। সেসব পরামর্শের মধ্যে একটি হলো গরম পানির ভাপ নেওয়া। সেখানে বলা হচ্ছে, নিয়মিত গরম পানির ভাপ নিলে ভাইরাস মরে যায়। সর্দি-কাশিতে এই পদ্ধতি উপকারী বলে করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রেও কার্যকরী মনে করছেন তারা।

এরকম অনেক পোস্টই দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, গরম পানিতে ভাপ নেওয়া শুরু করলে নাকের ভেতরে লুকিয়ে থাকা করোনাভাইরাস মারা যাবে এবং আপনি নিরাপদ থাকতে পারবেন। এটি সত্যিই কার্যকরী কি না তা নিয়ে সন্দিহান হচ্ছেন মানু্ষ। এর উত্তর দিয়েছে আমেরিকান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল। তারা জানিয়েছে করোনা সারাতে গরম পানির ভাপ সত্যিই কাজ করে কি না।

নিয়মিত গরম পানির ভাপ নিলে করোনাভাইরাস ধ্বংস হওয়ার বিষয়টির সত্যতা খুঁজে পাননি বিশেষজ্ঞরা। এটি একেবারেই রটনা এমনটাই জানাচ্ছেন তারা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ধরনের ভিত্তিহীন কথা বিশ্বাস করলে বরং বিপদ বাড়তে পারে। শক্তিশালী করোনাভাইরাসের কারণে পুরো পৃথিবীতেই চলছে মৃত্যুযজ্ঞ। এটি মেরে ফেলার উপায় এত সহজ হলে নিশ্চয়ই মহামারি দেখা দিত না। তাই এই গুজবে কান না দেওয়ার পরামর্শ দেন তারা।

বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়ে বলেন, গরম পানির ভাপ করোনাভাইরাস ধ্বংস করতে পারে এমন কোনো প্রমাণ মেলেনি এখনও। শুধু তাই নয়, এই প্রক্রিয়া ফুসফুসের জন্য হতে পারে ক্ষতিকর। করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সামাজিক দূরত্ব ও সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিকল্প নেই। সারাক্ষণ ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করলে নানা সত্য-অসত্য তথ্য বাড়িয়ে দিতে পারে মানসিক চাপ। যে কারণে দুর্বল হয়ে পড়তে পারে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা। তাই কোনো খবর জানলে আগে তার সত্যতা যাচাই করে নিতে হবে। ভুল পদ্ধতির প্রয়োগে নিজের বিপদ ডেকে আনবেন না।

এইচএন/এএ

Link copied