‘কালি ও কলম’ সম্পাদক আবুল হাসনাতের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

Dhaka Post Desk

ঢাকা পোস্ট ডেস্ক

০১ নভেম্বর ২০২১, ১০:২৬ এএম


‘কালি ও কলম’ সম্পাদক আবুল হাসনাতের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

আবুল হাসনাত/ ছবি- সংগৃহীত

সাহিত্য পত্রিকা কালি ও কলমের সম্পাদক, সাহিত্যিক ও শিল্প সমালোচক আবুল হাসনাতের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০২০ সালের এই দিনে (১ নভেম্বর) সকাল ৮টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ধানমন্ডির আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

আবুল হাসনাত ১৯৪৫ সালের ১৭ জুলাই পুরান ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। কবিতা, উপন্যাস, চিত্র-সমালোচনাসহ সাহিত্যের নানা বিভাগে পদচ্ছাপ রেখেছেন তিনি। পরিচিতি লাভ করেছেন একজন বিচক্ষণ ও সংবেদনশীল সাহিত্য সম্পাদক হিসেবে। 

আবুল হাসনাত/ ছবি- সংগৃহীত

দীর্ঘ ২৪ বছর দৈনিক সংবাদের সাহিত্য সাময়িকী সম্পাদনা করা আবুল হাসনাত আমৃত্যু কালি ও কলমের সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। পাশাপাশি চিত্রকলা বিষয়ক ত্রৈমাসিক ‘শিল্প ও শিল্পী’রও তিনি সম্পাদক ছিলেন।

তার সাহিত্যে তার ছদ্মনাম ছিল মাহমুদ আল জামান। ‘জ্যোৎস্না ও দুর্বিপাক, ‘কোনো একদিন ভুবনডাঙায়’, ‘ভুবনডাঙার মেঘ ও নধর কালো বেড়াল’ আবুল হাসনাতের উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ। তার প্রবন্ধগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে সতীনাথ, মানিক, রবিশঙ্কর ও অন্যান্য ও জয়নুল, কামরুল, সফিউদ্দীন ও অন্যান্য। শিশু ও কিশোরদের জন্য তিনি লিখেছেন ‘ইস্টিমার সিটি দিয়ে যায়’, ‘টুকু ও সমুদ্রের গল্প’, ‘যুদ্ধদিনের ধূসর দুপুরে’, ‘রানুর দুঃখ-ভালোবাসা’।

১৯৮২ সালে ‘টুকু ও সমুদ্রের গল্প’র জন্য আবুল হাসনাত অগ্রণী ব্যাংক শিশু সাহিত্য পুরস্কার পান। ২০১৪ সালে তিনি বাংলা একাডেমির সম্মানসূচক ফেলো মনোনীত হন। 

আবুল হাসনাত ছায়ানটের অন্যতম সংগঠক ও সদস্য ছিলেন। তিনি ছায়ানটের কার্যকরী সংসদের সহসভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। 

এইচকে

Link copied