প্রশাসনে যুগ্ম ও উপসচিব পদে আসছে বড় পদোন্নতি

Shahadat Hosen (Rakib)

১৬ মে ২০২২, ০১:১৩ পিএম


প্রশাসনে যুগ্ম ও উপসচিব পদে আসছে বড় পদোন্নতি

প্রশাসনে যুগ্মসচিব ও উপসচিব পদে বড় পদোন্নতি দিতে যাচ্ছে সরকার। ইতোমধ্যে পদোন্নতির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এরমধ্যে যুগ্মসচিব পদে চলতি মাসের শেষ অথবা আগামী মাসের শুরুর দিকে পদোন্নতি দেওয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। তবে উপসচিব পদে পদোন্নতির জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে পদোন্নতি প্রত্যাশীদের।  

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, পদোন্নতি সংক্রান্ত সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) সভা গত ১০ মে অনুষ্ঠিত হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় পদোন্নতি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

সভায় যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি দেওয়ার জন্য প্রত্যেক কর্মকর্তার কর্মজীবনের নথিপত্র নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। বিশেষ করে চাকরিজীবনে কোনো বিশৃঙ্খলা ছিল কি না বা দুর্নীতির কোনো বিষয় নিয়ে অভিযোগ ছিল কি না। এসব বিষয়সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। এ বিষয়ে আরও সভা হবে। পর্যালোচনা শেষে বাছাই করে পদোন্নতি দেওয়া হবে। 

সভায় উপস্থিত থাকা সরকারের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে ঢাকা পোস্টকে বলেন, যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি দেওয়ার জন্য সভায় কর্মকর্তাদের বিভিন্ন নথিপত্র পর্যালোচনা করা হয়েছে। এ বিষয়ে আরও কয়েকটি সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সেসব সভাতেও এসব বিষয়ে পর্যালোচনা করা হবে।    

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, পদোন্নতির জন্য এবার বিসিএসের ২০তম ব্যাচের পদোন্নতিবঞ্চিত কর্মকর্তাদের বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ২১তম ব্যাচের কর্মকর্তাদেরও অভ্যন্তরীণ গোপনীয় প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হয়েছে। পদোন্নতির সময়ের বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে মে মাসের শেষের দিকে অথবা জুনের শুরুর দিকে এ পদোন্নতি দেওয়া হতে পারে। 

তবে কতজন পদোন্নতি পাচ্ছেন সেটা এখনও নির্ধারিত নয় বলে জানান ওই কর্মকর্তা। তিনি বলেন, যোগ্যদেরই পদোন্নতি দেওয়া হবে।  

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নির্দেশনা অনুযায়ী যোগ্য কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে ৯ মের মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠান জেলা প্রশাসকরা। সে অনুযায়ী তাদের নথিপত্র আরও পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, এবার যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির জন্য ৩৮৯ জন যোগ্য কর্মকর্তাকে (উপসচিব পদমর্যাদার) বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২০তম ব্যাচের নিয়মিত ২৪ জন কর্মকর্তা রয়েছেন। 

একই ব্যাচের পদোন্নতিবঞ্চিত (লেফট আউট) ৫২, বিভিন্ন সময় পদোন্নতিবঞ্চিত ১৩৪ এবং অন্যান্য ক্যাডারের ১৭৯ জন কর্মকর্তা বিবেচনায় রয়েছেন। যুগ্মসচিব পদে ২০২১ সালের ২৯ অক্টোবর ২০তম ব্যাচের আংশিক পদোন্নতি দেওয়া হয়। 

এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি দিতে কাজ শুরু হয়েছে। যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে  এ পদোন্নতি দেওয়া হবে। 

অন্যদিকে, উপসচিব পদে পদোন্নতির প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে আগ্রহী বা যোগ্য বিভিন্ন ক্যাডারের ২৮তম ব্যাচ পর্যন্ত কর্মকর্তাদের তালিকা চেয়ে ক্যাডার নিয়ন্ত্রণকারী বিভিন্ন মন্ত্রণালয়কে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। 

এ পদে পদোন্নতির জন্য ৩৬৩ জন যোগ্য কর্মকর্তাকে বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে নিয়মিত ব্যাচের ১৬৪, ইকোনমিক ক্যাডারের ৪৫, বিভিন্ন সময়ে পদোন্নতিবঞ্চিত (লেফট আউট) ১৫৪ জন রয়েছেন। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পদোন্নতি প্রত্যাশী বিসিএস ২৮তম ব্যাচের একজন কর্মকর্তা ঢাকা পোস্টকে বলেন, পদোন্নতির ক্ষেত্রে অনেক সময় রাজনৈতিক বিবেচনা কাজ করে। সেটা যেন না হয়, আমরা স্বচ্ছতা চাই। যোগ্যরা পদোন্নতি পেলে তা নিয়ে কেউ অভিযোগ তুলতে পারে না। 

এসএইচআর/এনএফ

Link copied