খালি গায়ে, না খেয়ে, ভাঙা ঘরে কেউ থাকবে না

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৫ মে ২০২২, ০৯:২৮ পিএম


খালি গায়ে, না খেয়ে, ভাঙা ঘরে কেউ থাকবে না

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, উন্নত দেশের কাতারে গেলে বাংলাদেশে খালি গায়ে, না খেয়ে, ভাঙা ঘরে কেউ বাস করবে না। বাংলাদেশের ঘরবাড়ি উন্নত হচ্ছে। 

বুধবার (২৫ মে) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২ এর মাস্টার ট্রেনারদের চার দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তায় এসব কথা বলেন  

মন্ত্রী বলেন, দেশ উন্নত হলে প্রতিটি কাজে আমাদের দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। আয় বাড়বে, উৎপাদন আরও বাড়বে। কানাডা, নরওয়ে ফিনল্যান্ড, ইংল্যান্ড, জাপান, চীন ও কোরিয়ার জনগণ যে পর্যায়ে পৌঁছেছে, আমাদের জনগণও সে পর্যায়ে পৌঁছাবে।   

তিনি বলেন, ২০৩১ সালের মধ্যে আমাদের এসডিজির অভীষ্ট লক্ষ্য পূরণ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা আছে, ২০৩১ সালের মধ্যে আমরা পুরোপুরি উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করব।  ৪১ সালের মধ্যে আমরা একটি উন্নত দেশের মর্যাদা অর্জন করতে পারব।  

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে  আমরা  মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছেছি। জাতিসংঘ স্বীকার করে  নিয়েছে। ৩১ সালের  মধ্যে  আমরা উচ্চ মধ্যম  আয়ের কোটায় উচ্চ পর্যায়ে অবস্থান করব, আমরা আশা করি। ৩১ সালের পরের ১০ বছর আমাদের জীবনে অতি গুরুত্বপূর্ণ হবে। জনগণের শিক্ষা-দীক্ষা, অভিজ্ঞতা, দক্ষতা বাড়তেই থাকবে।

উন্নত দেশের সংজ্ঞা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, উন্নত দেশে সবাই শিক্ষিত হবে। পড়াশোনা জানবে, লিখতে পড়তে ও বুঝতে পারবে। কেউ না খেয়ে বাস করবে না। সবাই কাজ করতে পারবে। সবাইকে মিনিস্টার, ইঞ্জিনিয়ার ডাক্তার হতে হবে এমনটি নয়। সব কাজের মর্যাদা সমান। প্রতিটি কাজ আমরা বর্তমানের চেয়ে আরও ভালোভাবে সম্পন্ন করব। 


বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. সামসুল আরেফিন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন। এছাড়া বক্তব্য রাখেন জনশুমারি ও গৃহ গণনা প্রকল্পের পরিচালক মো. দিলদার হোসেন ও টেকনিক্যাল টিমের প্রধান ড. দিপংকর রায়। 

এসআর/আরএইচ

Link copied