ওয়াসার পানিতে করোনা নেই, তবে অন্য ভাইরাসও যেন না থাকে

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

৩০ মে ২০২২, ০৭:৩৩ পিএম


ওয়াসার পানিতে করোনার ভাইরাস নেই বলে দাবি করেছেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খান। তার এ দাবির পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীর সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ওয়াসার এমডিকে বলেন, ওয়াসার পানিতে করোনা ভাইরাস নেই ঠিক আছে, তবে পানিতে যেন অন্য কোনো ভাইরাস না থাকে সেই দিকে খেয়াল রাখবেন।

সোমবার (৩০ মে) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ওয়াসা ভবনের ‘ডিসেমিনেশন সেমিনার অব জয়েন্ট রিসার্চ প্রজেক্ট অন কোভিড-১৯ বাই ঢাকা ওয়াসা অ্যান্ড আইসিডিডিআরবি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি ওয়াসার এমডিকে এ নির্দেশনা দেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ওয়াসার এমডি বলেন, গবেষণায় প্রতীয়মান হয়েছে শুধু ওয়াসার পানিতে না, ঢাকার কোনো পানিতেই করোনার ভাইরাস নেই। আমরা নিশ্চিত ঢাকা ওয়াসার পানিতে কোভিড-১৯ এর কোনো ভাইরাস নেই। তার কোনো সম্ভাবনাও নেই। আমাদের এই রিসার্স করা হয়েছে আইসিডিডিআরবির সঙ্গে। তারা এই কথা বলেছে।

তার বক্ত্যেবের পরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ওয়াসার পানি নিয়ে ভোক্তারা নানা কথা বলেন। ওয়াসার এমডি বলেছেন, তাদের পানিতে করোনার ভাইরাস নেই, ঠিক আছে তবে পানিতে ডায়রিয়া ও কলেরাসহ অন্য কোনো ভাইরাস যেন না থাকে এই বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখবেন। একই সঙ্গে ওয়াসার পানির পাইপ কেটে অন্য লাইন করে পানি যাতে কেউ না নিতে পারে সেটিও খেয়াল রাখবেন। প্রয়োজনে পরিদর্শন বাড়াবেন। কোনো ভাবে ওয়াসার পানির ভেতর সুয়ারেজের ভাইরাস যাতে না ঢুকে তা দেখবেন।

এর আগে অনুষ্ঠানে ঢাকা ওয়াসার পানিতে করোনা ভাইরাস আছে কি না এ বিষয়ে একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। গবেষণাটি করা হয় ২০২০ সালের ১ আগস্ট থেকে ৩১ জানুয়ারি ২০২১ সাল পর্যন্ত। আর প্রকাশ করা হয় আজকে এই সেমিনারে।

গবেষণার জন্য ঢাকা ওয়াসার পাগলা সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, নারিন্দা, বাসাবো পয়ঃপাাম্পিং স্টেশনের পানি নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ঢাকার নদী-পুকুরসহ ভূ-পৃষ্ঠের উপরের পানির নমুনা নেওয়া হয়েছে ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথের (আইপিএইচ) পুকুর, মিরপুরের মাজার পুকুর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হল পুকুর এবং বুড়িগঙ্গা এবং আব্দুল্লাহপুরের তুরাগ নদী থেকে।

পরীক্ষার ফলাফলে জানা যায়, অপরিশোধিত পয়ঃনিষ্কাশন ও সুয়ারেজের পানিতে কোভিড-১৯ পাওয়া গেছে (ঢাকার ড্রেনের পানিতে এবং কর্দমাক্ত স্থানের পানিতে) কিন্তু ঢাকা ওয়াসার পাগলা সুয়ারেজের ট্রিটমেন্টের প্লান্টে (পিএসটিপি) পরিশোধিত পয়ঃনিষ্কাশন পানিতে কোথাও করোনার ভাইরাস পাওয়া যায়নি। ঢাকা শহরের পুকুর ও নদীতে থেকে সংগৃহীত নমুনা পানিতেও করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়নি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ঢাকা পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষের পানিতে কোভিড-১৯ এর কোনো ভাইরাস পাওয়া যায়নি। ঢাকা শহরের পুকুর ও নদীর পানিতে কোভিড-১৯ ভাইরাস পাওয়া যায়নি। সুতরাং ঢাকা শহরের ভূপৃষ্ঠের জলাশয় এবং ঢাকা ওয়াশার পিএসটিপির পরিশোধিত পয়ঃনিষ্কাশনের পানিতে করোনা সংক্রমণের জন্য হুমকি নয়। গবেষণাটি পরিচালনা করেন আইসিডিডিআরবির এমিরেটাস সাইনটিস্ট ড. সিরাজুল ইসলাম। আইসিডিডিআরবি ও ঢাকা ওয়াসা গবেষণাটির আয়োজন করে।

এমআই/আইএসএইচ

Link copied