২৭ জুলাইয়ের ইউপি ভোটে নৌ ও যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৬ জুলাই ২০২২, ০৯:২৭ এএম


২৭ জুলাইয়ের ইউপি ভোটে নৌ ও যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

আগামী ২৭ জুলাই ২৩টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে নির্বাচনের দিন, ভোটের আগে এবং পরে নৌ ও যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইসি’র নির্বাচন পরিচালনা শাখার উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উপসচিব আতিয়ার রহমান জানান, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এদিন ২৩টি ইউপি ও ৩টি পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে ট্রাক, পিকআপসহ লঞ্চ, স্পিড বোট, ইঞ্জিন চালিত যেকোনো ধরনের নৌ-যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

একইভাবে ২৭ জুলাই ভোটগ্রহণকে সামনে রেখে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ২৬ জুলাই দিবাগত রাত ১২টা থেকে ২৭ জুলাই দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ, ইঞ্জিন চালিত সকল ধরনের নৌ-যান এবং স্পিড বোট চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, সব ধরনের ইঞ্জিন চালিত নৌযানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ না করে শুধু লঞ্চ ও স্পিড বোট চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে হবে। বিশেষ করে ইঞ্জিন চালিত ক্ষুদ্র নৌযান বা জনগণ তথা ভোটারদের চলাচলের জন্য ব্যবহৃত ক্ষুদ্র নৌযান নিষেধাজ্ঞা বহির্ভূত রাখতে হবে।

অন্যদিকে, ২৬ জুলাই দিবাগত রাত ১২টা থেকে ২৭ জুলাই দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত ট্রাক ও পিকআপ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এর পাশাপাশি ২৫ জুলাই দিবাগত রাত ১২টা থেকে ২৮ জুলাই রাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

ইসি জানায়, রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী/তাদের নির্বাচনী এজেন্ট, দেশি/বিদেশি পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) ক্ষেত্রে শিথিলযোগ্য। তাছাড়া, নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশি/বিদেশি সাংবাদিক (পরিচয়পত্র থাকতে হবে), নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শকের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

এর বাইরেও জরুরি কাজে যেমন- অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক, টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রমে ব্যবহারের জন্য যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না। এছাড়া, জাতীয় মহাসড়ক, বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এরূপ নিষেধাজ্ঞা শিথিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

এসআর/এমএইচএস

Link copied