সেইস্ট ও ইউআরবির মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

Dhaka Post Desk

ঢাকা পোস্ট ডেস্ক

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৫৭ এএম


সেইস্ট ও ইউআরবির মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

সম্প্রতি সাউথ এশিয়ান ইন্সটিটিউট ফর সোশাল ট্রান্সফরমেশনের (সেইস্ট) সঙ্গে ইউশিকাগো রিসার্চ বাংলাদেশের (ইউআরবি) এক সমঝোতা চুক্তি (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে। বুধবার (৩১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৪টায় ঢাকার পান্থপথে সেইস্টের কার্যালয়ে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

সমঝোতা স্মারকে সেইস্টের পক্ষে নির্বাহী পরিচালক ইউএস রোকেয়া আক্তার এবং ইউআরবির পক্ষে ইউআরবি পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও শিকাগো ইউনিভার্সিটির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অ্যান্ড স্ট্র্যটেজি বিভাগের সহকারী সহ-সভাপতি কেটি হৃণ্যক স্বাক্ষর করেন। স্বাক্ষরিত স্মারকটি ইউশিকাগো রিসার্চ বাংলাদেশের দেশীয় প্রতিনিধি ড. সৈয়দ এমদাদুল হকের কাছে হস্তান্তর করা হয়। যিনি ছিলেন এই স্মারক সম্পাদনের জন্য অনুমোদিত ব্যক্তি। 

সেইস্ট ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুল আউয়াল তার প্রাণবন্ত উপস্থিতির মাধ্যমে উক্ত অনুষ্ঠানকে সজ্জিত করেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইউআরবির উপ-গবেষণা ব্যবস্থাপক বিনয় কুমার দত্ত ও সেইস্টের সদস্যরা।  
 
আইসিডিডিআরবি ও বিএসএমএমইউর পর সেইস্ট ৩য় বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান যার সঙ্গে ইউশিকাগোর গবেষণা বিষয়ক সহযোগিতার জন্য সমঝোতা হলো। দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্বাক্ষরিত এই স্মারক আগামী ৩ বছরের জন্য কার্যকর হবে। নন-ডিগ্রি গবেষণা কার্যক্রম, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষকসহ গবেষণা বিনিময়, আলোচনা সভা, আন্তর্জাতিক সম্মেলন, বিভিন্ন কর্মশালা ও প্রশিক্ষণসহ নানা কার্যক্রম যৌথভাবে পরিচালিত প্রতিষ্ঠান দুটি দ্বারা।
 
সেইস্ট ফাউন্ডেশন দ্বারা পরিচালিত সাউথ এশিয়ান ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল ট্রান্সফরমেশন (সেইস্ট) একটি অলাভজনক গবেষণা প্রতিষ্ঠান। দক্ষিণ এশিয়া ভিত্তিক চিন্তাশক্তির আধার হিসেবে স্বীকৃত সেইস্টের মূল লক্ষ্য বাংলাদেশে টেকসই নীতি ও সিদ্ধান্তগুলো সহজতর করতে কাজ করা। শিক্ষাক্ষেত্রে বৈষম্য, পরিবেশ দূষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনের দুর্বলতা হ্রাস করা এবং সামাজিক রূপান্তরের জন্য বৈজ্ঞানিক জ্ঞান তৈরি ও প্রচারের মাধ্যমে জনস্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটানোর লক্ষ্যে সেইস্ট কাজ করছে।

অন্যদিকে, ইউশিকাগো রিসার্চ বাংলাদেশ একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা যা বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য গবেষণায় বৈজ্ঞানিক প্রমাণ তৈরি এবং স্বাস্থ্যশিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা পরিষেবার প্রচারের মাধ্যমে জীবনধারা উন্নত করতে বিগত ২০ বছর ধরে কাজ করে আসছে। 

ওএফ

Link copied