এনার বাসে ভিডিও করতে পারবেন না যাত্রীরা

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:১৫ পিএম


এনার বাসে ভিডিও করতে পারবেন না যাত্রীরা

যাত্রী বেশে এক শ্রেণির তরুণ এনা পরিবহনের বাসে উঠে চালকদের দ্রুতগতিতে বাস চালাতে উসকে দিচ্ছেন। এরপর এক ধরনের ‘বাস রেসের’ ভিডিও করে ফেসবুক-ইউটিউবে আপলোড করছেন তারা। এমন অভিযোগ এনে বাসে যাত্রীদের জন্য ভিডিওধারণ নিষিদ্ধ করেছে এনা পরিবহন কর্তৃপক্ষ। 

এনার অভিযোগের সত্যতা মেলে বেশ কিছু ভিডিওতে। যেগুলোতে দেখা যায়- এক শ্রেণির তরুণ যাত্রী চালকদের দ্রুতগতিতে বাস চালাতে উসকে দিচ্ছেন। 

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বাস দুর্ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে, প্রতিযোগিতামূলক বাস চালানোর জন্য দুর্ঘটনাগুলো ঘটেছে।  

আরও পড়ুন : দুর্ঘটনার পর আধা ঘণ্টা বাসে আটকে ছিলেন যাত্রীরা

এনা ট্রান্সপোর্ট (প্রাঃ) লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজারের নির্দেশিত নোটিশে বলা হয়েছে, এনা ট্রান্সপোর্টের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য কিছু দুষ্কৃতকারী যাত্রী বেশে এনা বাসে ভ্রমণের নামে ড্রাইভারদের সাথে সুসম্পর্ক করে, রাস্তায় অন্য পরিবহনের সাথে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ওভার স্পিডে গাড়ি চালাতে উৎসাহিত করে এবং সেই সাথে ভিডিও ধারণ করে ইউটিউব এবং ফেসবুকে প্রচার করে। তাই, এনা ট্রান্সপোর্টের সুনাম রক্ষার্থে বাসে কোনো যাত্রী কোনো রকম ভিডিও ধারণ করতে পারবেন না। পাশাপাশি ড্রাইভারের পেছনের সিটের যাত্রীরা যেন কোনোভাবেই ওভার স্পিডে গাড়ি চালাতে চালককে উৎসাহিত করতে না পারে, সেটা সুপারভাইজারকে সার্বক্ষণিক খেয়াল রাখতে হবে। 

এছাড়া আরও বলা হয়েছে, ঢাকা সিটির ভেতরে হাইড্রলিক হর্ন বাজানো যাবে না। হাইড্রলিক হর্ন বাজানোর কারণে মামলা হলে কর্তৃপক্ষ দায়-ভার বহন করবে না। 

এ বিষয়ে এনা পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা পোস্টকে বলেন, এটি আসলে সতর্কতামূলক নোটিশ। আমরা লক্ষ্য করেছি কোনো কোনো যাত্রী চালকদের ওভারস্পিডে গাড়ি চালাতে উৎসাহ করে এবং এগুলোর ভিডিও চিত্র ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে নিজের স্বার্থ গোছায়। তাদের জন্য দুর্ঘটনা ঘটে। আমরা চাই না ওভারস্পিডের কারণে দুর্ঘটনা ঘটুক। 

আরও পড়ুন : এনা পরিবহনে যাত্রাপথে নামাজের বিরতি বাধ্যতামূলক

তিনি আরও বলেন, আমরা এখন সব বাসেই জিপিএস সিস্টেম করছি। এগুলো নিয়মিত মনিটর করা হয়। কোনো বাস ওভারস্পিডে চালালে আমরা দেখে সেই বাসের সুপারভাইজারের সঙ্গে কথা বলি। 

এমএইচএন/এনএফ

Link copied