ঢামেকে কর্মচারীদের সাংগঠনিক সংসদ নির্বাচনে ভোট চলছে

Dhaka Post Desk

ঢামেক প্রতিবেদক

০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:২৮ এএম


ঢামেকে কর্মচারীদের সাংগঠনিক সংসদ নির্বাচনে ভোট চলছে

উৎসবমুখর পরিবেশে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণির সরকারি কর্মচারী সমিতি (বাচসকস) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের সাংগঠনিক সংসদ নির্বাচন-২০২২। এতে ২৭টি পদের বিপরীতে ১০৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকাল ৯টা থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মিলন অডিটোরিয়ামে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

প্রার্থীদের অভিযোগ ১০৩ জন প্রার্থীর ১০৩ জন পোলিং এজেন্ট থাকার কথা কিন্তু সেখানে তাদের পোলিং এজেন্ট দেওয়া হচ্ছে না। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্যই নির্বাচন কমিশনার এই কাজটি করেছেন বলে অভিযোগ প্রার্থীদের। প্রার্থীরা আরও অভিযোগ করেন একটি পক্ষকে সুবিধা দেওয়ার জন্যই এই প্রক্রিয়া অবলম্বন করেছেন নির্বাচন কমিশনার।

প্রার্থীরা আরও বলছেন, এখন পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেলে যত নির্বাচন হয়েছে প্রত্যেক নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রত্যেকের পোলিং এজেন্ট একজন ছিল। কিন্তু এবার সেটা করেনি নির্বাচন কমিশন। পাঁচজনে একজন করে এজেন্ট দেওয়া হচ্ছে। এই নির্বাচন তো কোনো প্যানেল নির্বাচন নয়। যদি প্যানেল নির্বাচন হতো তাহলে এটা ঠিক ছিল। যেহেতু প্যানেল নির্বাচন নয় তাহলে এই পোলিং এজেন্ট কার হবে এমন প্রশ্ন তুলেছেন প্রার্থীরা। এই নিয়ে প্রার্থীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনারের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাচসকস সাংগঠনিক নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চারজন। তারা হলেন- মো. আবুল বাশার সিকদার, মোয়াজ্জেম হোসেন, মো. রমিজ ও মো. আলম। সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। তারা হলেন- মোফাজ্জল হোসেন খান, তালেব আলী ও মো. আজিম।

সহ-সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩১ জন। তারা হলেন- মো. রবিউল আউয়াল রবি, মো. মনিরুজ্জামান, বাবুল হোসেন, মো. জমির আলী, মো. মফিজুল ইসলাম, মো. শরীফুল ইসলাম, মো. পারভেজ আহামেদ, মো. নুরুল আফসার, রাউফু নোমান, মো. বিল্লাল হোসেন, মো. আইয়ুব আলী, মো. মোখলেচুর রহমান, মো. মিজানুর রহমান, মো. হাসেম আলী, মো. ফুল মিয়া, মোহাম্মদ আলী, মো. আমীর হোসেন, মোস্তফা কামাল, মো. খবির উদ্দিন, মোহাম্মদ শাহীন, মো. মুনছুর আলী, মো. স্বপন মিয়া, মো. দিনা, মোহাম্মদ আলমগীর, মনির হোসেন, মো. মনোহর আলী, মো. সদা, মো. জাহাঙ্গীর আলম, আবু হানিফ, মো. আমির হোসেন ও খোকন লাল।

সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন দুজন। তারা হলেন, মো. আব্দুল আজিজ ও মো. শিপন মিয়া। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ছয় জন। তারা হলেন- মো. আশরাফ হোসেন ইমন, শমসের উদ্দিন, শরীফ হোসেন, মো. শহীদুল ইসলাম (মিন্টু), মো. শাহ্ আলম ও মো. নাজিম।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মো. সুমন, মোহাম্মদ হোসেন লিটন, মো. রিপন হোসেন, মো. আব্দুল আউয়াল লিটন, মো. শিপন মিয়া। দপ্তর সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন। তারা হলেন- মো. ওমর ফারুক, মো. রুকন উদ্দীন, মো. মনির হোসেন, সেলিম হোসেন খান ও মো. মনিরুজ্জামান।

অর্থ সম্পাদক পদে লড়বেন ৪ জন। তারা হলেন- শেখ রমজান আলী, মো. আবুল কাশেম ভূঁইয়া, মো. জাকির হোসেন ও মো. জামাল হোসেন। প্রচার সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। তারা হলেন- জামাল উদ্দিন, মো. মনির হোসেন, মো. সোহেল রেজা ও মো. ফারুক হোসেন। সহ-প্রচার সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিন জন। তারা হলেন- মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. ওবায়দুল হক ও মো. আনোয়ার হোসেন।

মহিলা সম্পাদিকা পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চারজন। তারা হলেন, রহিমা খাতুন, মোসা. নাসিমা আক্তার, মিনা আক্তার  ও আকলিমা আক্তার। সহ-মহিলা সম্পাদক পদে লড়বেন ৩ জন। তারা হলেন, ইয়াসমিন বেগম, লতা মাজুমদার ও মোসা. রুমা।

সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন। তারা হলেন, রেজাউল হোসেন বাবু, মামুন মোল্লা ও মো হাকিম।

সমবায় সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন। তারা হলেন, মো. বাবুল মিয়া, মো. আরাফাত হোসেন উদয় ও আরিফ বেপারী। ধর্মবিষয়ক সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। তারা হলেন- মো. জুম্মান হোসেন, মো. বাবুল হোসেন, মো. হেলাল উদ্দিন ও রিপন মির।

কার্যকরী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৯ জন। তারা হলেন- মো. মনির হোসেন, মো. আব্দুল কাদের, পারুল আক্তার মনি, মো. আলতাফ হোসেন, শ্রী মতিলাল দাস, মো. উজ্জ্বল হোসেন, মো. ইব্রাহিম খান, মো. আবুল কালাম মিয়াজী, মো. কালাম, মো. জয়নাল আবেদিন, মো. বকুল মিয়া, মো. আইনুল ইসলাম, মো. মিজানুর রহমান, মো. সোহানুজ্জামান তুহিন, মাহবুব আলম পলাশ, মো. সুমন, মো. পান্না মিয়া, মো. তারিক মিয়া, ও মো.জামাল হোসেন।

এসএএ/এনএফ

Link copied