১০ বছরে পাঁচ শতাধিক মোটরসাইকেল চুরি করেন ‌‘বাইক’ জসিম

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:১৮ পিএম


১০ বছরে পাঁচ শতাধিক মোটরসাইকেল চুরি করেন ‌‘বাইক’ জসিম

গত ১০ বছর ধরে রাজধানীতে মোটরসাইকেল চুরি করে আসছিল মো. জসিম ওরফে ‘বাইক’ জসিম। সম্প্রতি তাকে গ্রেপ্তার করেছে মিরপুর মডেল থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, জসিমের একটি দল রয়েছে। এই দল জসিমের নেতৃত্বে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মোটরসাইকেল চুরি করে আসছে। গত ১০ বছর অর্থাৎ ২০১৩ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৫০০টি মোটরসাইকেল চুরি করেছেন ‘বাইক’ জসিম।

dhakapost

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে মিরপুরে নিজ কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপির) মিরপুর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. জসীম উদ্দীন মোল্লা।

মো. জসীম উদ্দীন মোল্লা বলেন, গত বছরের (২০২২) ডিসেম্বর মাসে মিরপুর মডেল থানাধীন একটি বাসার গেইট কেটে দুইটি মোটরসাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়। যার মোটরসাইকেল চুরি হয় তার নামও জসিম। তিনি পরে এ সংক্রান্ত একটি মামলা মিরপুর থানায় দায়ের করেন।

পরে মামলাটি তদন্ত করে আমরা জানতে পারি এই চক্রের মূলহোতা মো. জসিম ওরফে বাইক জসিম। পরে গত ১৪ জানুয়ারি তাকে আমরা নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে আরও ৪ মোটরসাইকেল চোরকে আমরা গ্রেপ্তার করেছি। তাদের কাছ থেকে আমরা ৪টি চোরাই মোটরসাইকেল জব্দ করেছি।

গ্রেপ্তার বাকি চার জন হলেন হারুন, মহসিন, রাজিব ও আশিষ চন্দ্র বিশ্বাস।

তিনি বলেন, জসিম দিনে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালায়। আর রাতে মোটরসাইকেল চুরি করেন। সে মূলত রাতে বাসাবাড়ির পার্কিংয়ে রাখা মোটর সাইকেলই চুরি করে। দিনে কিংবা সড়কে চুরি করলে ধরা পরার ঝুঁকি বেশি থাকে তাই রাতেই চুরি করে। দিনে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালানোর ফলে কেউ তাকে সন্দেহ করে না।

জসিমকে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে ডিসি বলেন, জসিম জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, সে ২০১৩ সাল অর্থাৎ গত ১০ বছর ধরে মোটরসাইকেল চুরির সঙ্গে জড়িত। এই ১০ বছরে ৫০০টি মোটরসাইকেল চুরি করে। তার একটি দল রয়েছে, সেই দলের সদস্য সংখ্যা ২০ জন। এই ২০ জনের দলটি কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত। এদের মধ্যে একটি গ্রুপ মোটরসাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়। এই গ্রুপটি অন্য আরেকটি গ্রুপের কাছে চুরি করা মোটরসাইকেল হস্তান্তর করে। পরে আরেকটি গ্রুপ মোটরসাইকেলগুলোকে মেরামত করে অন্য আরেকটি গ্রুপের সহায়তায় বিক্রি করে ফেলে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তার জসিমের বিরুদ্ধে ঢাকার বিভিন্ন থানায় কমপক্ষে ১২টি মামলা রয়েছে। এসব মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে সে কারাগারে যান ১০ বার। সর্বশেষ গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে কারাগার থেকে ছাড়া পান তিনি। জেল থেকে বের হয়ে আবারও মোটরসাইকেল চুরি করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হয় জসিম।

ডিসি মিরপুর বলেন, জসিমের বাবা একজন কৃষক। মাদারীপুর জেলার বেলদারহাট গ্রামের বাড়িতে কৃষি কাজ করেই তিনি জীবিকা নির্বাহ করেন। কিন্তু তার ছেলেরা সবাই অপরাধ জগতে বেপরোয়া। জসিমের বড় ভাই ডাকাত হানিফ ২০১৮ সালে এবং তার ছোট ভাই ডাকাত ইয়াসিন ২০১৪ সালে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে গিয়ে মারা যায় বলে জানা যায়।

চোরাই মোটরসাইকেলের কাগজপত্র চক্রটি কিভাবে পরিবর্তন করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মোটরসাইকেলের কাগজ তারা পরিবর্তন করতে পারে না।

এমএসি/এমএ

Link copied