আজকের সর্বশেষ

মুজিববর্ষে ৫০ হাজার টাকা করে পাবেন দুই হাজার নারী উদ্যোক্তা

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

১৬ মার্চ ২০২১, ০৫:৫২

মুজিববর্ষে ৫০ হাজার টাকা করে পাবেন দুই হাজার নারী উদ্যোক্তা

জুনাইদ আহমেদ পলক

নারী উদ্যোক্তাদের স্বনির্ভর করতে মুজিববর্ষ উপলক্ষে উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ও ই-ক্যাবের সদস্যসহ দুই হাজার নারী উদ্যোক্তাকে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প থেকে জামানত ছাড়াই নন রিফান্ডেবল সিড মানি হিসেবে এ টাকা দেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সোমবার (১৫ মার্চ) অনলাইন প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ তথ্য জানান। আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০২১ উদ‌যাপন উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন এসপায়ার টু ইনোভেশন (এটুআই) এ সভার আয়োজন করে।

ডিজিটাল স্পেসে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হলে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে উল্লেখ করে পলক বলেন, সাইবার স্পেসে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সচেতনতা ও প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে হবে। পাশাপাশি কঠোর আইন প্রয়োগের ওপর গুরুত্ব দেওয়া দরকার।

তিনি বলেন, নারী-পুরুষ বিভেদ ও বৈষম্য দূর করতে জনসচেতনতার পাশাপাশি পারিবারিক ও প্রতিষ্ঠান থেকেই নৈতিক ও মূল্যবোধের শিক্ষা দিতে হবে। সন্তানদের উদার ও প্রগতিশীল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

আইসিটি বিভাগ থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে জানিয়ে পলক বলেন, হাই-টেক পার্কগুলোতে শতকরা ৩০ ভাগ স্পেস নারী উদ্যোক্তাদের বরাদ্দ দেওয়া হবে। আইসিটি বিভাগ শি-পাওয়ার প্রকল্পের মাধ্যমে নারী উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে। এ পর্যন্ত ১০ হাজার ৫০০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ৪২৭ জন নারী উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। 

তিনি বলেন, লার্নিং ও আর্নিং প্রকল্পের মাধ্যমে ৩৮ হাজার জনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে মোট ৫৩ হাজার মানুষকে প্রশিক্ষিত করা হবে। 

তিনি জানান, এছাড়া তরুণ উদ্যোক্তাদেরকে আইসিটি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প হতে ১০ লাখ থেকে পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত সহযোগিতা করার সুযোগ রয়েছে। দেশের নারী উদ্যোক্তারা সরকারের এই সুযোগগুলো গ্রহণে এগিয়ে আসলে ভালো করবেন তারা।

তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে অনলাইনে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগমসহ আরো অনেকে।

একে/ওএফ

Link copied