বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল জাদুঘর উদ্বোধন করলেন হাসিনা-মোদি

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৬ মার্চ ২০২১, ১১:৫৭ পিএম


বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল জাদুঘর উদ্বোধন করলেন হাসিনা-মোদি

বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ভারতের মহাত্মা গান্ধীর সম্মানে তৈরি করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল জাদুঘর। ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে জাদুঘরটির উদ্বোধন করা হয়।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল জাদুঘর উদ্বোধন করেন। এ সময় বঙ্গবন্ধুর ছোট কন্যা ও প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানাও উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপমহাদেশের দুই বরেণ্য নেতা শেখ মুজিবুর রহমান এবং মহাত্মা গান্ধীর জীবনী নির্ভর ভ্রাম্যমাণ তথ্যচিত্রের ডিজিটাল প্রদর্শনী স্টলগুলো ঘুরে দেখেন। পরিদর্শনকালে দুই প্রধানমন্ত্রীকে ব্রিফ করেন বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনীর কিউরেটর ভারতীয় নাগরিক বিরাড ইয়াগনিগ।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে উদ্বোধন করা বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল জাদুঘরটি কয়েক দিন এখানে রাখার পর ঢাকার শিল্পকলা একাডেমিতে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। মূলত এই জাদুঘরে দুই নেতার বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য সময়ের বর্ণনা সংবলিত ডিজিটাল উপস্থাপনা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে দুই দিনের সফরে আজ (২৬ মার্চ) সকালে ঢাকায় আসেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এরপর সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান নরেন্দ্র মোদি। বিকেলে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের অনুষ্ঠানে যোগ দেন মোদি।

শনিবার (২৭ মার্চ) সকালে সাতক্ষীরার শ্যামনগরে যশোরেশ্বরী দেবি মন্দির পরিদর্শনে যাবেন মোদি। সেখান থেকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ পরিদর্শনে গিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানাবেন জাতির পিতার প্রতি। এরপর গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় মতুয়া সম্প্রদায়ের তীর্থস্থান ওড়াকান্দি মন্দির পরিদর্শনে যাবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। ওইদিন বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির একান্ত ও দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এ সময় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বিভিন্ন সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের পাশাপাশি ভার্চুয়ালি বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধনের কথা রয়েছে। পরে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে ওই রাতেই দিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাবেন মোদি।

এনআই/এইচকে

Link copied