ডিজিটাল পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়নে শুল্কমুক্ত সুবিধার প্রস্তাব

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৩ এপ্রিল ২০২১, ০০:১৩

ডিজিটাল পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়নে শুল্কমুক্ত সুবিধার প্রস্তাব

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক

ডিজিটাল পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর ২০৩০ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত সুবিধা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক। এ সময় তিনি ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্টের ওপর ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহারের দাবিও জানান।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো-২০২১-এ ‘মেড ইন বাংলাদেশ আইসিটি ইন্ডাস্ট্রি পলিসি’ নিয়ে ভার্চুয়াল গোলটেবিল সভায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের কাছে তিনি এ প্রস্তাব তুলে ধরেন।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সৃজনশীল অর্থনীতি ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণের স্বার্থে এবং ডিজিটাল বিপ্লব আরও এগিয়ে নিতে ইন্টারনেটকে বিলাসী সেবা হিসেবে দেখা যাবে না। বরং একে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির মতো মৌলিক জরুরি সেবা হিসেবে গণ্য করে ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্টের ওপর ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করতে হবে। এ সময় তিনি ডিজিটাল পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর ২০৩০ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত সুবিধা দেওয়ার প্রস্তাব দেন।

একইসঙ্গে আগামী অর্থবছরে বাজেটে ওরিক্স বায়োটেককে দেশে প্লাজমা ফ্রাকশনের জন্য কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যবহৃত যন্ত্র ও বিশেষায়িত গাড়ি আমদানিতে শুল্ক ছাড় দেওয়ার প্রস্তাবও করেন তিনি। প্রতিমন্ত্রীর খসড়া আকারের প্রস্তাবটির বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক লিভারেজিং ইন আইসিটির নীতি উপদেষ্টা সামি আহমেদ।

প্রস্তাবনায় আইটি ও আইটিইএস খাতে আগাম কর প্রত্যাহার এবং ২০২৪ সালের করমুক্তি সনদ প্রাপ্তি সুবিধার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়। এছাড়াও এই খাতে করপোরেট কর ৩৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে গোলটেবিল বৈঠকে বাক্কো সভাপতি ওয়াহিদ শরিফ, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক এন এম শফিকুল ইসলাম, ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক লিয়াকত আলী, প্রস্তাবিত ডিজিটাল ডিভাইস ম্যানুফ্যাকচারারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন (ডিডিএমইএ) সভাপতি মাহবুব জামান, চীনের ওরিক্স বায়োটেক হোল্ডিংসের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ওরিক্স বায়োটেক লিমিটেডের দেওয়ান শাহরিয়ার, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক মো. রেজাউল করিম, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবিরসহ অনেকেই বক্তব্য দেন।

প্রথমবারের মতো ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হচ্ছে ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০২১। করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধিকে গুরুত্ব দিয়ে এবারের প্রদর্শনীকে ভার্চুয়ালি সাজানো হয়েছে। প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিনে আজ ছয়টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। দর্শনার্থীরা ওয়েবসাইটে বা অ্যাপের মাধ্যমে এসব সেমিনার এবং প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করছেন। সার্বিক সমন্বয় করছে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ।

একে/এফআর

Link copied