ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তাকে প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘তোকে লাথি মারব’

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২৪ এএম


ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তাকে প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘তোকে লাথি মারব’

বিতর্কিত মন্তব্য আর কল রেকর্ড ফাঁসের পর পদত্যাগ করার নির্দেশ পাওয়া তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসানের মুখ থেকে রেহাই পেতেন না মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও। কারণে-অকারণে করতেন অশ্রাব্য গালাগালি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিমন্ত্রীর দফতরের সাবেক এক কর্মকর্তা ঢাকা পোস্টকে বলেন, তার ব্যবহার অত্যন্ত খারাপ ছিল। গালি কাকে বলে, তার সঙ্গে কাজ না করলে বুঝবেন না। মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘তোকে লাথি মারব’।

অন্য একটি ঘটনার ব্যাপারে ওই কর্মকর্তা বলেন, আরেকজনকে ফাইল দিয়ে মারার জন্য উদ্যত হন তিনি। বলেন, ‘তোকে আজ শেষ করে দেব।’

আরও পড়ুন : পাপ বাপকেও ছাড়ে না, তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ব্যারিস্টার সুমন

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, আল্লাহ সীমা লঙ্ঘনকারীদের পছন্দ করেন না। কিন্তু তিনি সীমা লঙ্ঘন করেছেন। এজন্যই তার এমন পরিণতি— মনে করেন ওই কর্মকর্তা।

একান্ত সচিব (পিএস) ও সহকারী একান্ত সচিবের (এপিএস) দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদেরও ছাড়তেন না ডা. মুরাদ। এসব কারণে দায়িত্বও ছেড়েছেন কয়েকজন কর্মকর্তা। কর্মচারীদের সঙ্গে গালাগালি করলেও ভয়ে মুখ খুলতেন না তারা।
 
এ বিষয়ে প্রতিমন্ত্রীর কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। 

এদিকে, বিতর্কিত মন্তব্য আর কল রেকর্ড ফাঁসের পর চারদিকে যখন সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছিল ঠিক তখনই ঢাকা ছাড়েন প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান। সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়েন তিনি।

আরও পড়ুন : ছাত্রদল থেকে ছাত্রলীগ নেতা, শেষতক বিদায়ঘণ্টা

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা ঢাকা পোস্টকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রতিমন্ত্রী চট্টগ্রামের উদ্দেশে দুপুরেই ঢাকা থেকে রওনা হন। সেখানে তার এক বন্ধুর বাসায় ওঠার কথা। বর্তমানে তার ফোন বন্ধ রয়েছে। তাই তার সঠিক অবস্থান জানি না।

সোমবার সচিবালয়ে নিজ দফতরেও আসেননি প্রতিমন্ত্রী। এদিন বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর তোপখানা রোডে অবস্থিত বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও সেখানে যাননি সরকারের এ প্রতিমন্ত্রী। 

এদিকে, প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসানকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার রাতে তাকে পদত্যাগের এ নির্দেশ দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রীকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছেও বলে জানান তিনি। ওবায়দুল কাদের জানান, মঙ্গলবারের মধ্যে মুরাদ হাসানকে পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন : ডা. মুরাদের বিতর্কিত যত মন্তব্য

সম্প্রতি একটি ভার্চুয়াল টকশোতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমানকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন ডা. মো. মুরাদ। এরপর তার সমালোচনা করেন অনেকে। এছাড়া তার পদত্যাগেরও দাবি ওঠে। 

এছাড়া ডা. মুরাদ হাসান ও ঢালিউডের এক চিত্রনায়িকার মধ্যকার কথোপকথনের যে কল রেকর্ড ফাঁস হয় তা ইতোমধ্যে টক অব দ্য কান্ট্রিতে পরিণত হয়েছে। অডিও ক্লিপটিতে শোনা যায়, ওই নায়িকাকে তাৎক্ষণিক তার কাছে যেতে বলেন মুরাদ। নায়িকা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও হুমকি দেন প্রতিমন্ত্রী।

এসএইচআর/আইএসএইচ

টাইমলাইন

Link copied