বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় সাতকানিয়ায় আ. লীগের ১৬ নেতাকর্মী বহিষ্কার

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫০ এএম


বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় সাতকানিয়ায় আ. লীগের ১৬ নেতাকর্মী বহিষ্কার

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার বিরোধিতা করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার ১৬ নেতা-কর্মীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে আওয়ামী লীগ।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা  আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আলহাজ্ব আবু জাফর সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সংগঠনের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে নেতা-কর্মীদের সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগে সুপারিশ পাঠানো হবে।

বহিষ্কৃত নেতা–কর্মীরা হলেন- চরতি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাঈনুদ্দীন চৌধুরী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক, নলুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান তসলিমা আবছার, উপজেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান, কাঞ্চনা ইউনিয়নের মোহাম্মদ ছালাম, আমিলাইষ ইউনিয়নের মোজাম্মেল হক চৌধুরী, আমিলাইষ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য এইচ এম হানিফ ও এস এম হারুন, পশ্চিম ঢেমশা ইউনিয়নে আবদুল মাবুদ সেন্টু রিদোয়ানুল হক সুমন, কালিয়াইশ ইউনিয়নে ফেরদৌস চৌধুরী সোহেল ও এডভোকেট আতাউর রহমান, ১২ নং ধর্মপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াস চৌধুরী, বাজালিয়া ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ চৌধুরী, ছদাহা ইউনিয়নে রফিক মাহমুদ চৌধুরী, সোনাকানিয়া ইউনিয়নে উপজেলা যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সেলিম উদ্দিন চৌধুরী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাষ্টার আবু তাহের।

এছাড়াও, বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে অর্থাৎ নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যেসব নেতা কাজ করছেন বা প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে।

উল্লেখ্য, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি সাতকানিয়া উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

কেএম/এমএইচএস

Link copied