ডাটাবেজ হ্যাক : মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ গ্রেফতার ৫

Dhaka Post Desk

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া

০৭ এপ্রিল ২০২১, ২২:৪০

ডাটাবেজ হ্যাক : মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ গ্রেফতার ৫

ইমিগ্রেশন ডিরেক্টর-জেনারেল দাতুক খায়রুল দাযাইমি দাউদ

কুয়ালালামপুর ও তার আশেপাশের ২২টি স্থানে অভিযান চালিয়ে অনলাইন ডাটাবেজ হ্যাকের সঙ্গে জড়িত একটি সিন্ডিকেটের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন।

স্থানীয় সময় বুধবার (৭ এপ্রিল) সকালে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের তালিকায় একজন বাংলাদেশি রয়েছেন। অভিযানে তাদের ল্যাপটপ, পাসপোর্ট ও নগদ অর্থসহ যাবতীয় সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। গ্রেফতারদের বয়স ৩৩ থেকে ৪৩ বছরের মধ্যে।

ইমিগ্রেশন ডিরেক্টর-জেনারেল দাতুক খায়রুল দাযাইমি দাউদ বলেন, মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন বিভাগের ডাটাবেজ হ্যাক করেছিল একটি সিন্ডিকেট। সেখান থেকে সিন্ডিকেটের সদস্যরা অর্থের বিনিময়ে জাল টেম্পোরারি ওয়ার্ক ভিজিট পাস (পিএলকেএস) প্রিন্ট করে বিতরণ করেছে। ২১ হাজার ৩৭৮ জনের জাল পিএলকেএস রাখার অভিযোগে আটক তাদের গ্রেফতার করা হয়। জাল পাসের বেশিরভাগই শিল্পকারখানা, বৃক্ষরোপণ ও সেবা খাতের। 

বুধবার মালয়েশিয়া দূর্নীতি দমন কমিশনের (এমএসিসি) ফেডারেল টেরিটরি কুয়ালালামপুর কার্যালয়ে ইমিগ্রেশন ডিরেক্টর-জেনারেল এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, এই সিন্ডিকেটের পাঁচ সদস্য বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া ও পাকিস্তানের। গ্রেফতারদের আইনি প্রক্রিয়া শেষ হলে তাদের কালো তালিকাভুক্ত করে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

ইমিগ্রেশনের সহযোগিতায় এমএসিসি সিন্ডিকেটের কার্যক্রম ও আস্তানা ভেঙে দিয়েছে। এর ফলে সরকারের কয়েকশ মিলিয়ন রিঙ্গিত রাজস্ব বেঁচে গেল, যা মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বিদেশি শ্রমিকদের কাছ থেকে নেওয়া হত। এই সিন্ডিকেট সদস্যরা ডাটাবেজ হ্যাক করে, ইমিগ্রেশন অফিসের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে এবং পরবর্তীকালে ইমিগ্রেশন অফিসের বাইরে থেকে তাদের নিয়ন্ত্রণের অপারেশন সেন্টার থেকে একটি ট্রান্সমিটার ইনস্টল করে পিএলকেএস ওয়ার্ক ভিজিট পাস প্রিন্ট করত।

এমএসিসির চিফ কমিশনার দাতুক সেরি আজমও গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মালয়েশিয়ায় সরকারি সংস্থার ডাটাবেজে অনুপ্রেবেশ একটি গুরুতর অপরাধ। 

আরএইচ

Link copied