চীনে ‘ইয়ুথ ক্যাম্পে’ ৮ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

Dhaka Post Desk

চীন প্রতিনিধি

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৩৪ এএম


চীনে ‘ইয়ুথ ক্যাম্পে’ ৮ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

চীনের চিয়াংশি প্রদেশে অনুষ্ঠিত ‘নর্থইস্ট এশিয়ান ইয়ুথ ক্যাম্প অন সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট’ ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করেছেন আটজন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী। তারা সকলে চিয়াংশি প্রদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত। 

পাঁচ দিনব্যাপী এ ইয়ুথ ক্যাম্পের প্রতিপাদ্য ছিল ‘সবুজ ও নিম্ন-কার্বন জীবন এবং টেকসই উন্নয়ন’। ১৩ থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত ক্যাম্পের উদ্বোধন ও সমাপনী অনুষ্ঠান চিয়াংশি প্রদেশের রাজধানী নানছাং শহরে অনুষ্ঠিত হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে ইয়ুথ ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করা হয়েছে। 

ইয়ুথ ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশি শিক্ষার্থী অতনু শুভম রায় বলেন, এই ইয়ুথ ক্যাম্পের মাধ্যমে চীনের লাল বিপ্লবের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পেরেছি। পাঁচ দিনব্যাপী এই ক্যাম্পে পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ঘুরিয়ে দেখানো হয়েছে। তরুণরা বিশ্বের ভবিষ্যৎ এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনের মূল শক্তি। এই ইয়ুথ ক্যাম্প বিশ্বব্যাপী তরুণদের টেকসই উন্নয়নে অংশগ্রহণের জন্য প্ল্যাটফর্ম তৈরি করবে।

চিয়াংশি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত সাজেদুল হক বলেন, চীনের চিয়াংশি প্রদেশের আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের নিয়ে এই ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। এই ইয়ুথ ক্যাম্পের মাধ্যমে চায়নার ‘গ্রিন ডেভেলপমেন্ট’, ‘দারিদ্র্য বিমোচন ও গ্রামীণ উন্নয়নের অর্জন’ এবং ‘রেড কালচার’-এর ইতিহাস ও ঐতিহ্য এশিয়ার অন্য দেশে পৌঁছে যাচ্ছে। ক্যাম্পে আমরা চীনের ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্পর্কে খুব ভালোভাবে জানতে পেরেছি এবং আমার খুব ভালো লেগেছে।

ইয়ুথ ক্যাম্পে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, রাশিয়া, জর্ডান, ইয়ামেন, পাকিস্তান, কাজাখস্তান এবং চীন থেকে ৪৩ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন। 

ইয়ুথ ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারীরা ফুঝো, গানঝু এবং চিয়াংশি প্রদেশের অন্যান্য শহরে গিয়েছিলেন শিখন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে। তারা চীনের লাল বিপ্লবের পুরাতন স্থান, দারিদ্র্য বিমোচন এবং গ্রামীণ পুনরুজ্জীবনের দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করেন। এ সময় তারা স্থানীয় লোকদের সাথে আলোচনা এবং মতবিনিময় করেছেন। 

ইয়ুথ ক্যাম্পটি চায়না সং ছিং লিং ফাউন্ডেশন এবং এসকে গ্রুপের যৌথ স্পন্সরে ‘ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অব চিয়াংশি প্রভিন্সিয়াল পিপলস গভর্নমেন্ট’ এবং ‘চিয়াংশি প্রভিন্সিয়াল পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ উইথ ফরেন কান্ট্রিস’ যৌথভাবে আয়োজন করে। 

মোহাম্মদ ছাইয়েদুল ইসলাম/এইচকে

Link copied