প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে কানাডায় আলোচনা সভা

Dhaka Post Desk

আহসান রাজীব বুলবুল, কানাডা প্রতিনিধি

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৫ এএম


প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে কানাডায় আলোচনা সভা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে সুধীজনদের নিয়ে কানাডায় ‘আজীবন সংগ্রামী, উন্নয়নের স্বপ্নদ্রষ্টা, অদম্য শেখ হাসিনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কানাডার আলবার্টার প্রথম বাংলা অনলাইন পোর্টাল প্রবাস বাংলা ভয়েসের উদ্যোগে ও আলবার্টা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সার্বিক সহযোগিতায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

প্রবাস বাংলা ভয়েসের প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুলের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এএফ ইমাম আলি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট কলামিস্ট, উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খ্যাতিমান সাংবাদিক নতুনদেশ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক শওগাত আলী সাগর। 

এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ আলবার্টার সভাপতি প্রকৌশলী আবদুল্লাহ রফিক, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহ-সভাপতি প্রকৌশলী মোহাম্মদ কাদির, বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন এবং সিলেট  অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি রুপক দত্ত।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. এএফ ইমাম আলি বলেন, দূরদর্শিতার সঙ্গে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে কাজ না করলে কখনোই সফলতা আসে না। বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশ বিভাজনের অব্যবহিত পরেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করেছিলেন, একটি স্বাধীন ভূখণ্ড ছাড়া বাঙালির সার্বিক অর্থনৈতিক ও সামাজিক মুক্তি সম্ভব নয়। তাই বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন ভূখণ্ডের লক্ষ্যে ধাপে ধাপে সব গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে অনুসরণ করেই বাঙালি জাতিকে প্রস্তুত করেন। যার চূড়ান্ত পরিণতি ১৯৭১ এর স্বাধীনতা যুদ্ধ ও আজকের স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ছিল সমৃদ্ধ অর্থনীতির একটি সাম্যভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থার সুখি, সুন্দর সোনার বাংলাদেশ। ৭১ এর পরাজিত শক্তি আর তাদের এদেশীয় ও আন্তর্জাতিক দোসরদের ষড়যন্ত্রে ৭৫ এর নির্মম বিয়োগাত্মক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ একুশ বছর পিছিয়ে গেলেও তারই কন্যা শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মতোই সুদৃঢ় লক্ষ্য নিয়েই সুখি, সমৃদ্ধ অর্থনীতির অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

সাংবাদিক শওগাত আলী সাগর বলেন, আধুনিক ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রশ্নে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প বা সমকক্ষ জনবান্ধব প্রতিশ্রুতিশীল সাহসী রাজনৈতিক নেতৃত্ব বাংলাদেশে নেই। তাই একমাত্র শেখ হাসিনা-ই জাতির আশা আকাঙ্ক্ষার নির্ভরযোগ্য আশ্রয়স্থল। পদ-পদবি আর মর্যাদার মোহে নয়, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে যারা অন্তরে ধারণ করেন, সহযোগী হিসেবে তাদেরকে নিয়েই বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

কলামিস্ট মাহমুদ হাসান প্রধানমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, অর্থনৈতিক সক্ষমতায় ঈর্ষণীয় সাফল্যের জন্য বাংলাদেশ আজ উচ্চ মর্যাদায় অধিষ্ঠিত। নারীর ক্ষমতায়ন, গড় আয়ু, আর সব সামাজিক সূচকেই দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে আজীবন সংগ্রামী, উন্নয়নের স্বপ্নদ্রষ্টা শেখ হাসিনা লক্ষ্য অর্জনে যেমন অদম্য, তেমনি দেশপ্রেমের প্রশ্নেও সদা আপসহীন।  

প্রকৌশলী আবদুল্লাহ রফিক প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বলেন, জাতির জনকের স্বপ্নপূরণের নিরলস প্রচেষ্টাই তার ধ্যান জ্ঞান। তিনি সুদৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন সুখি সমৃদ্ধ সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই বঙ্গবন্ধুর অন্তরাত্মার সর্বোচ্চ প্রশান্তি সম্ভব।

প্রকৌশলী মোহাম্মদ কাদির প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী বেঁচে থাকলে সেদিন বেশি দূরে নয়, সব অনাচার, আর অনিয়মকে প্রতিহত করেই সামাজিক, রাজনৈতিক সব দিকের বিবেচনায়ই বাংলাদেশ হবে রোল মডেল।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব রুপক দত্ত সমাজবিজ্ঞানী ড. এএফ ইমাম আলির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করার জন্য প্রবাস বাংলা ভয়েসকে ধন্যবাদ জানান। প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘ জীবন কামনা করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আলোকিত বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়, সব প্রতিবন্ধকতাকে অতিক্রম করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাস্তবায়িত হবে বঙ্গবন্ধুর আজন্ম লালিত স্বপ্ন সুখি, সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন উপস্থিত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে তার সমাপনী বক্তব্যে বলেন, সমাজবিজ্ঞানী ড. এএফ ইমাম আলি স্যারের মতো মানুষেরা যখন বলেন, সুদৃঢ় সামাজিক উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, তখন আমার মতো দেশ পাগল প্রবাসীরা সমাজকর্মী হিসেবে অনুপ্রাণিত হই। প্রধানমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে সবাইকেই বিনিদ্র প্রহরীর মতো যেকোনো অনাচার মোকাবিলায় শেখ হাসিনার পাশে থেকে শক্ত হাতে দায়িত্ব পালন করতে হবে, তবেই দ্রুত অর্জিত হবে বঙ্গবন্ধুর কাঙ্ক্ষিত সোনার বাংলাদেশ।

জেডএস

Link copied