প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলাম, মাঠে থাকলে হার্ট অ্যাটাক করতাম : পাপন

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৩ মে ২০২২, ০৭:১৯ পিএম


অডিও শুনুন

বাংলাদেশ ক্রিকেটে বেশ ব্যস্ত সময় পার হচ্ছে। মাঠের লড়াইয়ে নেমেছে জাতীয় ক্রিকেট দল, মাঠের বাইরে বোর্ড সভাপতি থেকে পরিচালকরা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত ঘুরছেন আইসিসি সভাপতিকে অবকাঠামো দেখাতে। আজ সোমবার মিরপুর হয়ে সিলেট ঘুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন আইসিসি প্রধান গ্রেগ বার্কলে। নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে তিনি যখন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন, তখন মাঠের ক্রিকেটে হতশ্রী অবস্থা বাংলাদেশ দলের।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ২৪ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ দল। সে সময় আইসিসি সভাপতি আর ক্রীড়ামোদী শেখ হাসিনার সঙ্গে ছিলেন বিসিবি সভাপতি। তখম কেমন অনুভূতি হচ্ছিল পাপনের? জবাবে পাপন বললেন, ‘৫ উইকেট পড়ার পর আমি ছিলাম না। থাকলে হয়তো হার্ট অ্যাটাক করতাম। তখন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলাম। উনি বলল কি অবস্থা খেলার, আমি বললাম আপা আমি এখনো দেখিনি, গিয়ে দেখতে চাই।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে আইসিসি প্রধান গ্রেগ বার্কলে ও বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন/বিসিবি

পরে শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে হেলিকপ্টার যোগে মিরপুর স্টেডিয়ামে আসেন পাপন-বার্কলে। ততক্ষণে মুশফিকুর রহিম আর লিটন দাসের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ দল। দুইজনেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেলেছেন। বোর্ড সভাপতিকে খুদে বার্তায় লিটন আর মুশকিককে অভিনন্দন জানান শেখ হাসিনা।

পাপন বললেন, ‘আমি নিশ্চিত বার্কলে চমকে গেছে একটা দেশের প্রধানমন্ত্রী ক্রিকেট এতটা ভালোবাসে। এমনকি যখন আমরা হেলিকপ্টারে ছিলাম। লিটন যেই মুহূর্তে সেঞ্চুরি করল, প্রধানমন্ত্রী আমাকে বার্তা পাঠিয়েছেন, লিটনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। আমি তো দেখতে দেখতে ভয় পাচ্ছিলাম। কারণ আগেরবার লিটন অল্পের জন্য মিস করেছে। তাই দেখতে ভয় পাচ্ছিলাম।’

সঙ্গে যোগ করেন পাপন, ‘এরপর আপার (শেখ হাসিনা) দ্বিতীয় বার্তা দেখলাম, মুশফিককে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এরপরও তিনি অনেক বার্তা পাঠিয়েছেন। তো দেখেন, এটা বার্কলের জন্যও একটা অভিজ্ঞতা। আমরা ক্রিকেট ভালোবাসি এবং আরো ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই।’

টিআইএস/এনইউ

Link copied