ঢাকা টেস্টে যতো রেকর্ডে রঙিন বাংলাদেশের ইনিংস

Toriqul Islam Sojol

২৪ মে ২০২২, ০৪:২০ পিএম


ঢাকা টেস্টে যতো রেকর্ডে রঙিন বাংলাদেশের ইনিংস

ক্রিকেটকে অনেকেই বলে থাকেন রেকর্ড ভাঙা-গড়ার খেলা। সবুজ গালিচার বাইশ গজের এই লড়াইয়ে যেন পড়তে পড়তে লুকিয়ে আছে দারুণ সব রেকর্ড। চলমান বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কার মধ্যকার টেস্টের বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসেও তৈরি হয়েছে বেশ কিছু রেকর্ড। দলীয় রেকর্ডের পাশাপাশি পার্টনারশিপ আর ব্যক্তিগত রেকর্ডে উজ্জ্বল হয়েছে বাংলাদেশে নাম। এমনও রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে যা টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসেই দেখা গেল প্রথমবার।

ঢাকা টেস্টে সোমবার প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২৪ রান তুলতে ৫ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ দল। এমন পরিস্থিতিতে দুই অঙ্কের রানে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কাও ভালোভাবেই তাড়া করে ফিরছিল টাইগারদের। তবে শেষমেশ সে লজ্জায় বাংলাদেশকে পড়তে দেননি মুশফিকুর রহিম আর লিটন দাস। দুই ব্যাটসম্যান ষষ্ঠ উইকেট পার্টনারশিপে করেন ২৭২ রান। যেখানে দুইজন করেন সেঞ্চুরি। এই পার্টনারশিপে একাধিক রেকর্ড ভেঙেছেন দুইজন।

২৫ রানের কমে ৫ উইকেট হারানোর পর ষষ্ঠ উইকেটে সর্বোচ্চ রানের কীর্তিটা এতদিন ছিল পাকিস্তানের দখলে। ১৯৫৯ সালে ঢাকার বুকেই পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের। এই রেকর্ড গড়ে ৬৩ বছর পর নতুন করে রেকর্ড গড়েন মুশফিক-লিটন। একই সঙ্গে বাংলাদেশের পক্ষে ষষ্ঠ উইকেট পার্টনারশিপ তাদের নামে লেখা হয়। ২০০৭ সালে মুশফিক আর আশরাফুল মিলে করেছিলেন ১৯১ রান। সেই রেকর্ডটাকে লিটন-মুশফিক পেছনে ফেলেন।

মুশফিক-লিটনের এই জুটি বাংলাদেশের পক্ষে যেকোনো উইকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ। এই ইনিংসে শূন্য রানে আউট হয়েছেন বাংলাদেশের ৬ জন ব্যাট্সম্যান। যা টেস্টের এক ইনিংসে যৌথভাবে সর্বোচ্চ 'ডাকের' রেকর্ড। এর আগে ২০০২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একই অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছিল টাইগাররা। বাংলাদেশ ছাড়া এই রেকর্ডে নাম আছে পাকিস্তান (১৯৮০), দক্ষিণ আফ্রিকা (১৯৯৬), ভারত (২০১৪) ও নিউজিল্যান্ডের (২০১৮)।

বাংলাদেশ দল এই ইনিংসে এমন এক রেকর্ড গড়েছে যা টেস্ট ১৬৫ বছরের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে ঘটল প্রথমবার। ৬ জন ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হওয়ার পরেও দলীয় সর্বোচ্চ রান সাড়ে তিনশ তো বটেই দুইশর কোটাও পার হয়নি এর আগে। এর আগে ৬ ডাকের ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের ছিল ভারতের। তবে দুইশর কাছাকাছি যেতে পারেনি তারা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টারে অলআউট হয়েছিল ১৫২ রানে।

এই ইনিংসে লিটন দাস ব্যক্তিগত অর্জনে করেন ১৪১ রান, যা টেস্ট ক্রিকেটে তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। ব্যক্তিগত অর্জনের রেকর্ডে নিজের নাম উজ্জ্বল করেছেন মুশফিকুর রহিম। ঘরের মাঠে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে আর আগে ৭০৬৩ রান নিয়ে সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন তামিম ইকবাল। ১৭৫ রানের ইনিংস খেলার পথে তামিমকে ছাড়িয়ে গেছেন মুশফিক। তার বর্তমান সংগ্রহ ৭০৬৯ রান।

টিআইএস/এটি

Link copied