সাব্বিরদের হারাতে মুস্তাফিজকেও লাগলো না তামিমদের

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

১১ জুন ২০২১, ১২:১৫


সাব্বিরদের হারাতে মুস্তাফিজকেও লাগলো না তামিমদের

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের চলতি মৌসুমে অপ্রতিরোধ্য প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। নিজেদের খেলা আগের ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই জয়। একমাত্র হার মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে। সেই মোহামেডানকে গতকাল (বৃহস্পতিবার) রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ। আজ (শুক্রবার) লিগের সপ্তম রাউন্ডে মুখোমুখি হয় দুই দল প্রাইম ব্যাংক ও রূপগঞ্জ। এ ম্যাচে প্রাইম ব্যাংকের কাছে ধরাশায়ী নারায়ণগঞ্জের দলটি।

প্রাইম ব্যাংকের হয়ে বল হাতে আলো ছড়াচ্ছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৬ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এই বাঁহাতি পেসার। এ ম্যাচের একাদশেও ছিলেন মুস্তাফিজ, তবে তাকে ব্যবহারের প্রয়োজনই মনে করেননি প্রাইম ব্যাংকের অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়। মুস্তাফিজকে ছাড়াই বাজিমাত তামিম ইকবালদের। সাব্বির রহমান, সোহাগ গাজীদের ১০১ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে আবার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে প্রাইম ব্যাংক।

ম্যাচে আগে ব্যাট করে রূপগঞ্জের সামনে ১৭০ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুড়ে দেয় প্রাইম ব্যাংক। টস জিতে ইনিংস শুরু করতে নেমে অবশ্য নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি প্রাইম ব্যাংকের ওপেনার তামিম ইকবাল। ১২ রান করে আউট হন তিনি। তবে আরেক ওপেনার রনি তালুকদার ঠিকই নিজের ফিফটি তুলে নেন। কম যাননি এনামুল হক বিজয়ও, শেষপর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ৫৮ রানে। দ্বিতীয় উইকেটে এই দুজনের জুটি থেকে আসে ৬৮ রান।

রনি ৩১ বলে ৫৩ রান করে আউট হন মুক্তার আলীর বলে। যেখানে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন তিনি। আগের ম্যাচে অর্ধশতক হাঁকানো মোহাম্মদ মিঠুন আজ সুবিধা করতে পারেননি, ফিরেছেন ১৮ রান করে। পরে অপরাজিত বিজয়ের ৪৬ বলে ৫৮ রানের ইনিংসের কল্যাণে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারানো প্রাইম ব্যাংকের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৬৯ রান। রূপগঞ্জের হয়ে ২৮ রানে ৩ উইকেট নেন মুক্তার আলী।

১৭০ রানের বিশাল লক্ষ্য টপকাতে নেমে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে রূপগঞ্জের ইনিংস। শুরু হয় পিনাক ঘোষকে দিয়।  মোহামেডানের বিপক্ষে ফিফটি হাঁকিয়ে ম্যাচ জেতানো এই ওপেনার আজ আউট হন ১ রান করে। ধারাবাহিক ব্যর্থ সাব্বির রহমান, আজ তো রানের খাতায় খুলতে পারেননি তিনি। 

আরেক ওপেনার আজমির আহমেদ ১২ রান করে নাহিদুলের দ্বিতীয় শিকাররে পরিণত হন। পরে নাঈম ইসলামকেও ফেরান তিনি। চলতি মৌসুমে বল হাতে আলো ছড়াচ্ছেন নাহিদুল। ৭ ম্যাচে ৮ উইকেট তার দখলে। রূপগঞ্জের হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ রানের ইনিংস আসে জাকের আলীর ব্যাট থেকে। প্রাইম ব্যাংকের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে আর কোনও ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেননি।

এতে মাত্র ৬৮ রানে থামে রূপগঞ্জের ইনিংস। ১০১ রানের বিশাল জয় নিয়ে আবার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে প্রাইম ব্যাংক। এদিন প্রাইম ব্যাংকের হয়ে বল হাতে নেননি মুস্তাফিজ। সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন নাহিদুল ইসলাম। রুবেল হোসেন ও নাঈম হাসান ২টি করে উইকেট নেন।

টিআইএস/এনইউ

Link copied