বিপিএল কি চলবে?

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ জানুয়ারি ২০২২, ০৬:৩৬ পিএম


বিপিএল কি চলবে?

যত দিন গড়াচ্ছে ততই ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। ভাইরাসটির দক্ষিণ আফ্রিকান ধরন ওমিক্রনে টালমাটাল গোটা দেশ। এমন পরিস্থিতিতে আজ (শুক্রবার) বেশ শক্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

করোনার এই উচ্চ সংক্রমণ কমাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধসহ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তবে ঠিকই মাঠে গড়িয়েছে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। মাঠে গড়ালেও বিপিএল স্বস্তিতে নেই বিসিবি। সব ম্যাচ পূর্ব নির্ধারিত সূচিতে মাঠে গড়াবে কি না এ নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে।

আজ (শুক্রবার) শুরু হয়েছে বিপিএলের অষ্টম আসর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড মনে করছে, বিপিএল বন্ধ করার মতো পরিস্থিতি এখনো তৈরি হয়নি। তবে সংক্রমণের হার বাড়লে বা ভিন্ন পরিস্থিতি তৈরি হলে বিপিএল চালিয়ে যাওয়া নিয়ে সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পারে ক্রিকেট বোর্ড। এমনটি জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মল্লিক বললেন, ‘যেকোনো পরিস্থিতি হলে তো বাধা ধরা কোনো নিয়মের মধ্যে আর থাকব না। আমরা অবশ্যই পরিবেশ পরিস্থিতি দেখে আমাদের সিদ্ধান্ত পাল্টাব। স্টেক হোল্ডারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে যেটা ভালো হবে সেই সিদ্ধান্ত নেব। পরিস্থিতি খারাপ হলে আমরা সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পারি।’

Dhaka Post

সঙ্গে যোগ করেন মল্লিক, ‘এখন ওমিক্রনের যে পরিস্থিতি তাতে স্বস্তি নেওয়ার কোনো অবকাশ নেই। এই যে ম্যাচ কাভার করতে আপনারা (সাংবাদিক) আসছেন, মাঠকর্মীরা কাজ করছেন, বিদেশি খেলোয়াড়, লোকাল খেলোয়াড় কোচিং স্টাফ, তারপরে আমাদের আম্পায়ার সবাই কিন্তু মাঠে। করোনার এই সংক্রমণটা বেড়ে যাওয়ার কারণে আসলে স্বস্তি নেওয়ার কোনো অবকাশ নেই। তবে আমরা সবাই চেষ্টা করছি যেন বিপিএলটা সফলভাবে শেষ করতে পারি।’

আজ শুরু হওয়া এবারের বিপিএলের শেষ হবে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি। ঢাকা, সিলেট, চট্টগ্রামে হবে বিপিএলের ম্যাচগুলো। করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়লেও এখনই ভেন্যু কমানোর ভাবনা নেই বিসিবির।

মল্লিকের ব্যাখ্যা, ‘এই টুর্নামেন্টটার জন্য কিন্তু মিরপুরে টানা খেলা দেওয়া সম্ভব না। হয় চার পাঁচদিনের বিরতি দিতে হবে না হয় অন্য ভেন্যুতে স্থানান্তর করতে হবে। আর একটা জিনিস হলো আমাদের দ্বিপক্ষীয় সিরিজগুলো কিন্তু সিলেটে হয়, সুতরাং ওই উইকেট আমাদের লোকাল খেলোয়াড়রা আত্মস্থ করে, সেটাকে কিন্তু আমাদের মাথায় নিতে হয়। এটা যেহেতু আমাদের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট তাই আমরা এখন পর্যন্ত সিলেট ও চট্টগ্রামকে সিলেক্ট করছি। আল্লাহ রহমতে কোনো রকমের বাধাবিপত্তি না আসলে আমরা ওখানে খেলা চালাব।’

টিআইএস

Link copied