আফগানিস্তান সিরিজের আগেই নতুন বোলিং কোচ নিয়োগ দেবে বিসিবি

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:২৭ পিএম


আফগানিস্তান সিরিজের আগেই নতুন বোলিং কোচ নিয়োগ দেবে বিসিবি

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের পর্দা নামবে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি। বিপিএল শেষ হতেই আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে পা রাখার কথা আছে আফগানিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের। সমান ৩টি করে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি খেলতে আসবেন রাশিদ খানরা। এই সিরিজের আগেই খালি থাকা বাংলাদেশ দলের পেস বোলিং কোচ নিয়োগ দেওয়ার ভাবনা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের।

আজ (মঙ্গলবার) মিরপুরে সংবাদমাধ্যমকে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলছিলেন, ‘বোলিং কোচ খোঁজা হচ্ছে। আমাদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় ৩-৪টা নাম আছে। এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আশা করি আফগানিস্তান সিরিজের আগে চূড়ান্ত করে ফেলতে পারব।’

বিপিএল কোনো দলের কেউ ভাবনায় আছে কিনা জানতে চাইলে জালাল বললেন, ‘বিপিএলেরও হতে পারে, বাইরেরও হতে পারে। যে সবচেয়ে ভালো হবে তাকেই আনার চেষ্টা করছি।’

গুঞ্জন আছে শ্রীলঙ্কার সাবেক পেসার চামিন্দা ভাস ও বিপিএলের দল চট্টগ্রাম দলের পেস বোলিং কোচ শন টেইট আগ্রাহী মুস্তারফিজুর রহমানদের দায়িত্ব নিতে। তাদের নিয়ে ভাবনার কথা জানান জালাল, ‘(শন টেইট, চামিন্দা ভাস) মিডিয়াতে আমি শুনেছি। টেইট তো আগেই বলেছে সে আগ্রহী। ভাসও আমাদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় আছে।’

তবে যাকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হোক তাকে অন্তত দুই বছর ওটিস গিবসনের ছেড়ে যাওয়া চেয়ারে বসাতে চায় বিসিবি। পূর্ণমেয়াদী কোচের সঙ্গে খণ্ডকালীন কোচও ভাবনায় আছে ক্রিকেট বোর্ডের।

জালাল বলেন, ‘কোনো কোচকেই আমরা দুই বছরের কম সময় দেইনি। দুই বছর অবশ্যই লম্বা সময়। ওটিস গিবসনও দুই বছরের চুক্তিতে ছিল। যাকেই দিব দুই বছরের চুক্তিতে দায়িত্ব দিব। বেশিরভাগ কোচ এখন আইপিএলে বা অন্য লিগে কাজ করে। আমরা আলাপ-আলোচনা করছি- বছরে কতদিন কাজ করবে সেই চুক্তিতে যাব নাকি ফুল টাইম। কেউ ফুল টাইম কাজ করতে পারলে অবশ্যই ফুল টাইমের জন্য নিয়োগ দিব।’

বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ হিসেবে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে যোগ দিয়েছিলেন ওটিস গিবসন। ২ বছরের মেয়াদ শেষে আর চুক্তি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। ফলে বিসিসির সঙ্গে সম্পর্ক চুকে গেছে গিবসনের।

টিআইএস

Link copied