নতুন উচ্চতায় কিংস না অস্কারের ফের ব্যর্থতা?

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৪ মে ২০২২, ১১:৫০ এএম


নতুন উচ্চতায় কিংস না অস্কারের ফের ব্যর্থতা?

বসুন্ধরা কিংসের লক্ষ্য এএফসি কাপের জোনাল সেমিফাইনাল খেলা। গত তিন বছরে সেই লক্ষ্য পূরণ হয়নি। আজ মঙ্গলবার সেই লক্ষ্য পূরণের সম্ভাবনা যেমন রয়েছে তেমনি টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় ঘন্টাও বাজার শঙ্কা রয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন দলটির।

বিকেলে গোকুলাম কেরালার বিপক্ষে কিংসকে জিততে তো হবেই পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে মাজিয়ার দিকে। মোহনবাগান রাতের ম্যাচে মাজিয়াকে হারালে হেড টু হেডে মোহনবাগান সেমিফাইনালে খেলবে। কিংস ও মোহনবাগানের দুই ম্যাচই ড্র হলে তখন চার দলেরই সমান ৪ পয়েন্ট হবে। সেক্ষেত্রে হেড টু হেড সব সমান হবে, তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় মোহনবাগান পরবর্তী রাউন্ডে খেলবে। সব মিলিয়ে কিংসের পরবর্তী রাউন্ড খেলা বেশ যদি কিন্তুর উপর নির্ভর করছে। স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজন গতবার ব্যর্থ হয়েছিলেন দলকে পরবর্তী রাউন্ডে উঠাতে।

প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টসকে ১-০ গোলে হারালেও দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের এটিকে মোহনবাগানের কাছে হেরে গেছে ৪-০ গোলে। শনিবার প্রাকৃতিক ঝড়ের সঙ্গে মোহনবাগান ঝড়ও দেখেছিল বসুন্ধরা। লিস্টন কোলাসো ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে কোচ অস্কারের রক্ষণভাগ। 

তবে শেষ ম্যাচে ভাল কিছু পাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামবেন স্প্যানিশ এই কোচ, ‘গত ম্যাচটা (মোহনবাগান) একটা দুঃস্বপ্নের মতো কেটেছে। গত কয়েকদিন খুব খারাপ গেছে স্বাভাবিকভাবেই। মনে হচ্ছিল আমরা যেন নিঃশ্বাস নিতে পারছিলাম না। তবে এটাই ফুটবল। এখন আমাদের ফাইনাল দিনের জন্য প্রস্তুত হতে হবে। ছেলেরা প্রস্তুত একটা ভাল ম্যাচ খেলে মিশন শেষ করার জন্য। এখানে সবার সুযোগ আছে। আমরা সেই সুযোগটা কাজে লাগাতে চাই। ফুটবল নিয়ে কাজ করার খুব বেশি কিছু নেই। মানসিক প্রস্তুতিটাই আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ।’ 

প্রতিপক্ষ কেরালা নিয়ে অস্কারের কথা, ‘গোকুলাম খুব সংঘবদ্ধ একটি দল।’ তিনি যোগ করেন, ‘দু'টি দল বাড়তি সুবিধা নিয়ে খেলতে নামবে। তারা আগের ম্যাচের ফলাফল জেনে খেলতে পারবে। প্রথম ম্যাচে আমরা যদি হারি, তাহলে মোহনবাগানের কোন সুযোগ থাকবে না। আবার আমরা যদি জিতি মাজিয়ার জন্য পরের ম্যাচ গুরুত্বহীন হয়ে পড়বে। যে কোন একটা দলের বাড়তি সুবিধা নিয়ে মাঠে নামার সুযোগ থাকবে। অথচ এটা হওয়ার কথা নয়। আমি জানি এই শহরে আরও ভাল মাঠ রয়েছে। কল্যানীতে অসাধারণ একটা গ্রাউন্ড আছে। অনায়াসেই দু'টি ম্যাচ একই সময়ে হতে পারতো।’

এদিকে গোকুলাম কেরালার কোচ ভিনসেনজো আলবার্তো বলেন, ‘আমাদের অনেক খেলোয়াড়দের চুক্তি ৩১ মে শেষ হয়ে যাবে। তাই এটা তাদের জন্য ফাইনাল ম্যাচ। তারা নিশ্চয় চাইবে শেষটা জয়ে রাঙাতে এবং আমার বিশ্বাস আছে তারা শতভাগ দিবে, ক্লাবের জন্য, আমার জন্য এবং নিজেদের জন্য।’ তিনি যোগ করেন, ‘এই টুর্নামেন্টের দলগুলো প্রত্যেকেই একটি করে ম্যাচ জিতেছে।’

‘মোহনবাগানকে গোকুলাম হারিয়েছে, গোকুলাম ভাল। কিংস মাজিয়াকে হারিয়েছে, কিংস ভাল। এভাবে ফুটবলের বিশ্লেষণ হয় না। মোহনবাগানের ফরোয়ার্ড লাইন অনেক গতিশীল, প্রতিভাবান ফুটবলারে ভর্তি। মাজিয়ার খেলোয়াড়রা টেকনিক্যালি ভাল। তবে বসুন্ধরা কিংস খানিকটা শারীরিক ফুটবল খেলে। তাছাড়া তৃতীয়বারের মতো তারা এএফসি কাপে খেলছে। অভিজ্ঞতায় অবশ্যই আমাদের চেয়ে এগিয়ে। এটা ঠিক যে তারা মোহনবাগানের কাছে ৪-০ গোলে হেরেছে। তবে ওই হার দিয়ে বসুন্ধরাকে বিচার করলে ভুল হবে। হিসাব-নিকাশ নিয়ে মোটেই ভাবছি না। মোট কথা আমরা আমাদের সেরাটা দিয়ে চাইবো মৌসুমটা জয়ে শেষ করতে।’

আজকের খেলা

এএফসি কাপ ফুটবল

বসুন্ধরা কিংস ও গোকুলাম কেরালা
(বিশ্ব যুব ভারতী স্টেডিয়াম, বিকাল ৫টা)

সরাসরি টি স্পোর্টস

এজেড/এটি/এইচএমএ

Link copied