পূজার আনন্দে মেতেছেন সাফজয়ী কৃষ্ণা 

Dhaka Post Desk

স্পোর্টস ডেস্ক

০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৫৬ পিএম


পূজার আনন্দে মেতেছেন সাফজয়ী কৃষ্ণা 

সময়টা এখন স্বপ্নের মতো কাটছে কৃষ্ণা রাণী সরকারের। মাত্র কয়েকদিন আগে জিতেছেন সাফ ফুটবলের শিরোপা। ফাইনালে নেপালের জালে জড়িয়েছেন দুটি মূল্যবান গোল। দেশে ফিরে জাতীয় পর্যায় থেকে শুরু করে স্থানীয় পর্যায়ে সংবর্ধিত হয়েছেন বেশ কয়েকবার। সবমিলিয়ে নিজ এলাকা টাঙ্গাইলে এখন বেশ আনন্দে সময় কাটছে সাফজয়ী তারকার। সে আনন্দ বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে শারদীয় দুর্গাপূজা।

দেশজুড়ে এখন মহাসমারোহে পালিত হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। রোববার মহাসপ্তমীর দিনটি শাড়ি পরে বাঙালি সাজে উদযাপন করেছেন কৃষ্ণা। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে সে ছবি পোস্ট করে ভক্ত-সমর্থকদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তারকা স্ট্রাইকার। 

ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘মহা সপ্তমীর শুভেচ্ছা সকলকে। সকলের পূজা ভালো কাটুক, সকলে সুস্থ থাকুন আর আনন্দে মেতে উঠুন আমাদের এই শ্রেষ্ঠ উৎসবে।’

জাতীয় পর্যায় থেকে বেশকিছু সংবর্ধনা পাওয়ার পর নিজ জেলা টাঙ্গাইলে সংবর্ধনা পেয়েছেন কৃষ্ণা। এত এত অভ্যর্থনা ও অর্থ পুরস্কারের মাঝে নিজ এলাকার সংবর্ধনাকে সেরা বলছেন তারকা স্ট্রাইকার। রোববার আরেকটি ফেসবুক পোস্টে নিজ জেলার মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘দেশে আসার পর থেকে একের পর এক সংবর্ধনা পাচ্ছি। কিন্তু গতকাল যে সংবর্ধনা ছিল সেটা আমার জীবনের সেরা একটি দিন ছিল। আমার নিজ জেলা টাঙ্গাইল এবং নিজ উপজেলা গোপালপুর থেকে সম্বর্ধনা পেয়েছি এবং বিভিন্ন জায়গা থেকে অনেক সংবর্ধনা পেয়েছি। সবাই এত ভালোবাসা দেবে সত্যিই কখনো কল্পনা করতে পারিনি। সত্যিই সবার ভালোবাসায় আমি সিক্ত এবং কৃতজ্ঞ।’

শনিবার টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে সাফজয়ী স্ট্রাইকার কৃষ্ণা রাণী সরকার ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনকে সংবর্ধণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা। অনুষ্ঠানে জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কৃষ্ণাকে দুই লাখ এবং কোচ ছোটনকে এক লাখ টাকা উপহার দেয়া হয়। এছাড়া জেলা পুলিশ সুপার এবং টাঙ্গাইল-৫ আসনের সংসদ সদস্যের পক্ষ থেকেও অর্থ পুরস্কার পেয়েছেন তারা।  

এনইআর

Link copied