এমি মার্টিনেজ : উপেক্ষা থেকে খ্যাতির শিখরে

Neamat Ullah

০৭ জুলাই ২০২১, ১০:৪৯ এএম


অ্যাস্টন ভিলার নাম্বার ওয়ান এখন কেমন বোধ করছেন? টাইব্রেকারে তিনটে পেনাল্টি সেভ করার অনুভূতি কেমন হয়? এক বছর আগে কি এমন কিছু কল্পনাতেও ছিল তার? কৈশোরের শেষে যোগ দেওয়া ক্লাব আর্সেনালেই যে অচ্ছ্যুত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। সেই মার্টিনেজই এখন আর্জেন্টিনার নায়ক।

২০১২ সালে এমিলিয়ানো যখন আর্সেনালে যোগ দিয়েছিলেন তখন তার বয়স মোটে ১৭ বছর। কৈশোরের গন্ধও ততক্ষণে যায়নি গা থেকে, সেই বয়সে ক্লাব থেকে পেলেন একরাশ উপেক্ষা। সেই যে শুরু এরপর তিনি একের পর এক মৌসুম ধারে কাটিয়েছেন অক্সফোর্ড ইউনাইটেড, শেফিল্ড ওয়েন্সডে, রটারডাম, উলভারহ্যামটন, গেটাফে, রিডিংয়ের মতো ক্লাবে। 

২০২০ সালে বার্ন্ড লেনোর চোটের কারণে অবশেষে জায়গা পেলেন আর্সেনাল দলে। একের পর এক ক্লিনশিট, অমানুষিক সব সেভ দিয়েও মৌসুম শেষে আবারও উপহার পেলেন উপেক্ষা। এবার ক্লাব তাকে বেচেই দিল অ্যাস্টন ভিলার কাছে। 

সেখানে যোগ দেওয়ার পর আর্জেন্টাইন এই গোলরক্ষক স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আর্সেনালের ওপর কিছুটা ক্ষোভ ঝেরেই বলেছিলেন, ‘এখনও আর্সেনালের সব কিছু ভালোবাসি আমি এবং খেলাও দেখি তাদের। তবে আমার মনে হয়েছিল, আমাকে যেমন বিশ্বাস করার কথা তেমন বিশ্বাসটা তারা আমার ওপর রাখত না।’

ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও নাকি ধান ভানে। এখানেও তিনি রেখেছেন কৃতিত্বের ছাপ। দারুণ সব পারফর্ম্যান্স উপহার দিয়েছেন অ্যাস্টন ভিলার ভঙ্গুর রক্ষণের পেছনে থেকে। সেই দলে থেকেও মৌসুম শেষে গোলরক্ষকদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ‘ফ্যান্টাসি লিগ পয়েন্ট’ সাক্ষ্য দেয় তার পক্ষেই। 

তবে তার উপেক্ষার পর্বটা শেষ হয়নি এখানেই। এমন সব পারফর্ম্যান্সের পরেও জাতীয় দলে কোচ লিওনেল স্ক্যালোনির কাছ থেকে পেয়েছিলেন চিরচেনা উপেক্ষা। শেষমেশ সুযোগ পেলেন এক মাস আগে। তাও মূল গোলরক্ষক ফ্র্যাঙ্কো আরমানি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায়। 

পেয়েই জাত চেনাচ্ছিলেন নিজের। একের পর এক ক্লিনশিট রাখছিলেন, আর্জেন্টাইন রক্ষণের শেষ প্রহরীর দায়িত্বটা পালন করেছিলেন ভালোভাবেই। 
শেষমেশ এই কোপা আমেরিকার সেমিফাইনাল। শেষ দুটো পেনাল্টি শুটআউটে জেতেনি দল, এবারও যখন তেমন কিছু প্যারানয়া ফিরে ফিরে আসছিল তখন তিনি সেসব তুড়িতে উড়িয়ে দেন তিনটে পেনাল্টি সেভ দিয়ে। দলকে একা হাতেই নিয়ে যান ফাইনালে।

তবে কাজটা এখনই শেষ হয়ে যায়নি। ১১ জুলাই কোপা আমেরিকার ফাইনালে নেইমার, রিশার্লিসন, ফিরমিনোদের ঠেকানোর কাজটা যে এখনো বাকি। সেটা ঠিকঠাক করে দিতে পারলেই যে ২৮ বছরের শিরোপার আক্ষেপ ঘুচে যায় আর্জেন্টিনার!

এনইউ/এটি

Link copied