সেই ম্যারাডোনাই দেখলেন না মেসির মুখের এই হাসি

Neamat Ullah

১১ জুলাই ২০২১, ১২:১৩ পিএম


সেই ম্যারাডোনাই দেখলেন না মেসির মুখের এই হাসি

ম্যারাডোনার শেষ আইকনিক মুহূর্ত, সর্বশেষ বিশ্বকাপে মেসির গোলের পর/ফাইল ছবি

নাইজেরিয়ার বিপক্ষে লিওনেল মেসির মহামূল্য গোলটার কথা মনে আছে আপনার? কিংবা এর পরের মুহূর্তটা, যখন ক্যামেরা মাঠ থেকে সরে গিয়েছিল গ্যালারির ডিয়েগো ম্যারাডোনার ওপর? হাত বুকের ওপর টেনে, ক্রস করে তার সেই ‘ওয়াকান্দা ফরেভার’ উদযাপনটা মনে আছে তো? 

প্রত্যেকটা বিশ্বকাপ-কোপা আমেরিকার আগে থাকত তার সরব উপস্থিতি। পত্র-পত্রিকা আর টিভি চ্যানেলের সাংবাদিকদের ভিড় সবসময় থাকত তার আশেপাশে। তার কথা এমনই অমূল্য। 

ম্যারাডোনা এককালে বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন, আর্জেন্টিনার সর্বশেষটাও। এরপর তিনি আশা দেখাতেন, হতাশা ঝেড়ে দিতেন, প্রকাশ্য সমালোচনায় শূলে চড়াতেন আর্জেন্টিনার কর্তাব্যক্তিদের, কোচদের। তবে মনে মনে যে শিরোপার আশাটা থাকত লুকিয়ে, তা হয়তো আর না বলে দিলেও চলে। 

তার অবসরের পর থেকেই আর্জেন্টিনায় চলেছে ‘নতুন ম্যারাডোনার খোঁজ’। ২০০৬ বিশ্বকাপের কথাই ভাবুন, সেবার হুয়ান রোমান রিকেলমে ছিলেন, কার্লোস তেভেজ, হ্যাভিয়ের স্যাভিওলা, পাবলো আইমার, সবার কপালে জুটে গিয়েছিল নতুন ম্যারাডোনার তকমা। 

তবে ম্যারাডোনা নিজে তার উত্তরসূরি হিসেবে নাম বলেছিলেন লিওনেল মেসির। মেসি সেই কথার দাম রেখেছেন। অনেক বছর থেকেছেন সাফল্যের চূড়ায়। কিন্তু যে কারণে নতুন ম্যারাডোনার খোঁজ, সেই শিরোপার দেখাই যে পাচ্ছিল না আর্জেন্টিনা। অবশেষে পেলেন মেসি, পেল আর্জেন্টিনা। ঘুচল দীর্ঘ শিরোপা খরা।

শিরোপা জয়ের এই মাহেন্দ্রক্ষণে যদি ম্যারাডোনা থাকতেন, তাহলে কী করতেন তিনি? খেলাটা শেষ হলে জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিকুচি করেই হয়তো ছুটে যেতেন মেসিদের কাছে। বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতে উঠতেন আর্জেন্টিনা দলের সঙ্গে। জরিমানার মুখে পড়তেন হয়তো, শুনতেন ভর্ৎসনাও; কিন্তু তিনি কি আর সেসবের ধার ধারতেন? ২৮ বছরের খরা কাটানোর দিনে কি আর অত কিছুর ধার ধারলে হয়?

এই ২৮ বছরে কী কী সব সুযোগ হারিয়েছে আর্জেন্টিনা দেখুন! এই ব্রাজিলের কাছেই হেরেছে দুটো ফাইনালে, বিশ্বকাপে মেসির স্বপ্ন ধুয়ে গেছে জার্মান উল্লাসে, এরপর চিলির কাছে আরও দু’বার, অপেক্ষার প্রহর যেন শেষই হচ্ছিল না। এমন অপেক্ষার শেষে ম্যারাডোনা রীতিমতো পাগলাটে কিছু করে বসতেন না, তা কি সম্ভব ছিল?

আর্জেন্টাইন তো বটেই, ফুটবল ইতিহাসেরই অন্যতম পাগলাটে এই চরিত্রই কিনা নেই আর্জেন্টিনার এমন উৎসবের দিনে! থাকবেন কী করে, মৃত্যু নামক ধ্রুব, অলঙ্ঘনীয় সত্যের যানে চড়ে তিনি যে চলে গেছেন ওপারে! 

এনইউ/এটি/জেএস

Link copied