পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় : ১ম অধ্যায় (চতুর্থ পর্ব)

Dhaka Post Desk

মো: সিদ্দিকুর রহমান
সিনিয়র শিক্ষক, কে এইচ আইডিয়াল স্কুল, মুগদা, ঢাকা

১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:৫৩

পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় : ১ম অধ্যায় (চতুর্থ পর্ব)

ফাইল ছবি

সুপ্রিয় পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। তোমরা নিশ্চয় জানো যে, পিইসি পরীক্ষায় বাংলাদেশ বিশ্বপরিচয় বিষয়ে যোগ্যতাভিত্তিক কাঠামোবদ্ধ প্রশ্ন থাকবে। আজ তোমাদের বাংলাদেশ বিশ্বপরিচয় বিষয় থেকে ৩টি যোগ্যতাভিত্তিক কাঠামোবদ্ধ প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে আলোচনা করব।

প্রশ্ন : মুক্তিযুদ্ধের কিছুদিনের মধ্যে বাংলাদেশে একটি সরকার গঠিত হয়সরকার কী নামে পরিচিত ছিল? সরকারের রাষ্ট্রপতি কে ছিলেন? মুক্তিযুদ্ধে সরকারের ভূমিকা তিনটি বাক্যে লিখ

উত্তর : মুক্তিযুদ্ধের কিছুদিনের মধ্যে বাংলাদেশে একটি সরকার গঠিত হয়। এ সরকার মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত ছিল। সরকারের রাষ্ট্রপতি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। মুক্তিযুদ্ধে এ সরকারের ভূমিকা সম্পর্কে তিনটি বাক্য নিচে দেয়া হলো-

১. মুজিবনগর সরকার মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনায় মুক্তিবাহিনী গঠন করে।

২. এ সরকারের অনুপ্রেরণায় অগণিত মানুষ দেশকে মুক্ত করতে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

প্রশ্ন : ১৪ ডিসেম্বর শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয় কেন? পাঁচটি বাক্যে লিখ

উত্তর : যে কারনে ১৪ ডিসেম্বর শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয় তা নিচে পাঁচটি বাক্যে তুলে ধরা হলো-

১. শহিদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার জন্য।

২. শহিদদের স্মরণ করার জন্য।

৩. মুক্তিযুদ্ধে তাদের অবদান স্বীকার করার জন্য।

৪. শহিদদের পরিবারের প্রতি সহমর্মী হওয়ার জন্য ।

৫. বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত করার জন্য।

প্রশ্ন :  মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনার জন্য ১৯৭১ সালের ১১ জুলাই একটি বাহিনী গঠন করা হয়বাহিনীটির নাম কী? বাহিনীটি কয়টি ব্রিগেড ফোর্সে বিভক্ত ছিল? বাহিনীটি সম্পর্কে তিনটি বাক্য লিখ

উত্তর : মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনার জন্য ১৯৭১ সালের ১১ জুলাই যে বাহিনী গঠন করা হয় তার নাম মুক্তিবাহিনী। মুক্তিবাহিনী তিনটি বিগ্রেড ফোর্সে বিভক্ত ছিল। মুক্তিবাহিনী সম্পর্কে তিনটি বাক্য হলো-

১. এ বাহিনীর প্রধান ছিলেন জেনারেল  মুহাম্মদ আতাউল গণি ওসমানী।

২. এ বাহিনী যুদ্ধ পরিচালনার সুবিধার্থে সারাদেশকে ১১টি সেক্টরে ভাগ করে।

৩. এ বাহিনীকে নিয়মিত ও অনিয়মিত বাহিনীতে ভাগ করা হয়েছিল।

এমকে

Link copied