দেশে উদ্ভাবিত সব অ্যাপস জমা দেওয়া যাবে বিডি অ্যাপসে

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৪ মার্চ ২০২১, ০৭:৪৪ পিএম


দেশে উদ্ভাবিত সব অ্যাপস জমা দেওয়া যাবে বিডি অ্যাপসে

অ্যাপস ডেভেলপারদের জন্যে একটি নির্দিষ্ট প্ল্যাটফর্ম তৈরি হয়েছে। বিডি অ্যাপস নামে এ প্ল্যাটফর্মে দেশের যে কেউ তাদের উদ্ভাবিত অ্যাপসগুলো জমা দিতে পারবে। জাতীয় অ্যাপস স্টোর হিসেবে বিডি অ্যাপস সব অ্যাপসের মূল ঠিকানা হিসেবে কাজ করবে।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দেশের বৃহত্তম মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্ল্যাটফর্ম বিডি অ্যাপসকে (www.bdapps.com) জাতীয় অ্যাপ স্টোর হিসেবে ঘোষণা দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এ উপলক্ষে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আইসিটি বিভাগ ও রবির মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বলা হয়, এখন থেকে শুধু রবি নয়, যে কোনো মোবাইল ফোন অপারেটর অথবা অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের অ্যাপ ডেভেলপাররাও এ প্ল্যাটফর্মটিতে তাদের অ্যাপ জমা দিতে পারবেন।

পাঁচ বছরের জন্য আইসিটি বিভাগ ও রবির সমঝোতা চুক্তিতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ এবং রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ। চুক্তির মেয়াদ নির্ধারিত পাঁচ বছরের পরেও প্রয়োজনে বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিডি অ্যাপসের ওয়েবসাইটে বর্তমানে ১২ হাজারের বেশি ডেভেলপারের পাশাপাশি ২৩ হাজারের বেশি অ্যাপ রয়েছে। যার মধ্যে ২০ শতাংশই নারী ডেভেলপার। বিডি অ্যাপসে একজন ডেভেলপার প্রতি মাসে সর্বাধিক ২ লাখ টাকা উপার্জন করছেন এবং ৩০০ এরও বেশি ডেভেলপার প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করছেন।

বক্তারা জানান, গত পাঁচ বছরে, বিডিঅ্যাপস এ ডিজিটাল যুগে একটি আত্মনির্ভর প্রজন্ম গড়ে তুলতে ডেভেলপারদের মধ্যে ৫৫ কোটি টাকারও বেশি অর্থ বিতরণ করেছে। যে কোনো (প্রোগ্রামার এবং নন-প্রোগ্রামার উভয়ই) http://dev.bdapps.com/ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অ্যাপ্লিকেশন তৈরি এবং প্রকাশের যাত্রা শুরু করতে পারবেন। যে কোনো চ্যালেঞ্জ/সাহায্যের জন্য ডেভেলপারেরা যে কোনো সময় যোগাযোগ করতে পারবেন এ ইমেইল: : ([email protected] )।

এসময় জানানো হয়, উদ্ভাবনী মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তিখাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা করতে সরকারের আইসিটি বিভাগের সঙ্গে কাজ করবে টেলিকম অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড।

দেশের বৃহত্তম মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্ল্যাটফর্ম বিডি অ্যাপসের মাধ্যমে ডিজিটাল শিক্ষা ও উদ্যোক্তা তৈরির কাজ হবে। বিডি অ্যাপসে স্থানীয় মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলেপাররা তাদের তৈরি অ্যাপ হোস্ট করে তা বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আমাদের সমস্ত উদ্যোগ এবং প্রকল্পগুলোর মূল ফোকাস হলো যুবসমাজ, আইসিটি এবং কর্মসংস্থান। এ চুক্তির মাধ্যমে ডেভেলপাররা আইসিটি বিভাগের বর্তমান প্রশিক্ষণ সুবিধা পাবেন। বিডি অ্যাপসের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা গ্রাহকদের কাছে পৌঁছানোর মাধ্যমে আর্থিকভাবেও লাভবান হবেন। সরকার বিডি অ্যাপসের সঙ্গে এক হয়ে দেশের গতিশীল যুবসমাজকে ডিজিটাল উদ্ভাবনের দিকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে।

তিনি বলেন, অ্যাপ ডেভেলপার হিসেবে ক্যারিয়ার নির্বাচনে সারা দেশের তরুণ প্রজন্ম এবং উদ্যোক্তাদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হবে বিডিঅ্যাপস।

অনুষ্ঠানে রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, আইসিটি বিভাগের সঙ্গে কাজ করার সুযোগে তরুণ প্রজন্মের জন্য একটি স্বাবলম্বী অ্যাপ্লিকেশন ইন্ডাস্ট্রি গড়ে তোলার স্বপ্ন বাস্তবতার দিকে আরও এগিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, এই চুক্তির মাধ্যমে বিডিঅ্যাপস অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপারদের জন্য আইসিটি বিভাগের হাব হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে। যার ফলে যুবসমাজের ডিজিটাল দক্ষতা তৈরিতে সব আইসিটি বিভাগের প্রতিষ্ঠান, যেমন: হাই-টেক পার্ক, ডিজিটাল ল্যাব এবং অন্য সুযোগ-সুবিধার ব্যবহার আরও সহজ হবে। এর মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশের উন্নয়নে তরুণদের উল্লেখযোগ্য অবদান আরও বিস্তৃত হবে।

একে/এসএম

Link copied