৭ কোটি ডলারে পাতাল সড়ক নির্মাণ করছেন ইলন মাস্ক

Dhaka Post Desk

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

০৮ জুলাই ২০২১, ০১:২১ পিএম


৭ কোটি ডলারে পাতাল সড়ক নির্মাণ করছেন ইলন মাস্ক

লাসভেগাসের ফোর্ট লডারডেল শহর ও ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলস শহরে পাতাল সড়ক নির্মাণ প্রকল্পে ৭ কোটি ডলারের চুক্তি হয়েছে। ছবি : ডেইলি মেইল।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের লাসভেগাসের ফোর্ট লডারডেল শহর ও ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলস শহরে পাতাল সড়ক নির্মাণ প্রকল্পে এই ২ শহরের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ইলন মাস্কের মালিকানাধীন বোরিং কোম্পানির ৭ কোটি ২০ লাখ ডলারের চুক্তি হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল।

পাতাল সড়ক প্রকল্পটির নাম দেওয়া হয়েছে লাস ওলাস লুপ। বলা হয়েছে, বাস্তবায়নের পরে এখানে চালকবিহীন গাড়ি চলাচল করতে পারবে এবং এটি নির্মিত হলে শহর দু’টির যানজট সমস্যার সমাধান হবে।

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ফোর্ট লডারডেল শহরের কর্তৃপক্ষের কাছে ইতোমধ্যেই এই প্রকল্প গৃহীত হয়েছে। শহরের কেন্দ্র ও সমুদ্রসৈকতের মধ্যে ট্রানজিট সিস্টেম রাখার ব্যাপারে প্রস্তাবে উল্লিখিত হয়েছে।

Dhaka Post

গত মঙ্গলবার শহরটিতে এক গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। কিছু নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সেই গণভোটে দেখা গেছে, তবে বেশিরভাগ ভোটার প্রকল্পের কার্যক্রম শুরুর পক্ষে রায় দিয়েছেন। তারই প্রেক্ষিতে টুইটারে ফোর্ট লডারডেল শহরের মেয়র ডিন ট্রান্টালিস বলেন, ‘ইলন মাস্কের প্রস্তাবিত প্রকল্পটি আমরা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেবো। শিগগিরই পাতাল সড়ক নির্মাণের কাজ শুরু হবে।’

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলে এ খবর প্রকাশের পর স্থানীয়দের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে বলছেন, শেষ পর্যন্ত লাস ভেগাস ও লসঅ্যাঞ্জেলসের সঙ্গে ইলন মাস্কের এই চুক্তি সফল হবে না। কারণ কয়েক কোটি ডলারের প্রকল্পটি অদূর ভবিষ্যতে মুখ থুবড়ে পড়বে।

তবে ফোর্ট লডারডেল শহরের মেয়র ডিন ট্রান্টালিস তাদের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছেন, এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে চালকবিহীন গাড়ি চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে, যানজট কমানো হবে এবং মানুষের কর্মঘণ্টা নষ্ট হওয়ার সমস্যার সমাধান হবে।

ফোর্ট লডারডেলের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সান-সেন্টিয়েলকে ফোর্ট লডারডেলের মেয়র ট্রান্টালিস বলেন, ‘এর মাধ্যমে শহরবাসী যানজট ছাড়াই যাতায়াতের সুযোগ পাবে। একই সঙ্গে এটি আমাদের ট্র্যাফিক সমস্যারও সমাধান করবে। এখন দেখি, ইলন মাস্ক কোন দিকে আমাদের নিয়ে যান।’

তবে শহরের পাতাল সড়ক উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ডেভেলপার শার্লি ল্যাড মনে করছেন, এই প্রকল্প ব্যয়বহুল। তিনি বলেন, ‘আমরা যাই করি মানুষের কথা ভেবেই করি। কারণ আমরা আর সড়ক নির্মাণ করতে পারবো না।’

ফোর্ট লডারডেলের কমিশনার রবার্ট ম্যাকেঞ্জি ও এক ইমেইলবার্তায় বলেছেন, এই প্রকল্পটি ব্যাপক ব্যয়বহুল।

Dhaka Post

সান-সেন্টিয়েলকে পাঠানো এক ই-মেইলে এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘প্রস্তাবিত লাস ওলাস লুপ প্রকল্পটি বাস্তবায়নযোগ্য নয়। এ কারণে এর পেছনে অনর্থক অপব্যয় না করাই শ্রেয়।’

বোরিং কোম্পানির কর্মকর্তারা বলেন, প্রস্তাবিত পাতাল সড়ক নির্মাণ প্রকল্পে লডারডেল শহরের কর্তৃপক্ষ ১ মাইল পর্যন্ত ব্যয় করা হবে ১ কোটি থেকে ১ কোটি ২০ লাখ ডলার এবং এর মোট ব্যয় ৬ কোটি থেকে ৭ কোটি ২০ লাখ।

ফোর্ট লডারডেল ছাড়াও বোরিং কোম্পানি মিয়ামি শহরেও পাতাল সড়ক নির্মাণের প্রস্তাব করেছে। মিয়ামি শহরের প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রস্তাবিত এই সড়কটির জন্য ৩ কোটি ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে।

এইচএকে/এসএমডব্লিউ/এএ

Link copied