চলতি বছর যেসব অ্যাপ ও সার্ভিস বন্ধ করেছে গুগল

Dhaka Post Desk

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

১৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:২১ এএম


চলতি বছর যেসব অ্যাপ ও সার্ভিস বন্ধ করেছে গুগল

যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারনেট ও সফটওয়্যার সেবাদানকারী বহুজাতিক কোম্পানি গুগল। কোম্পানিটি ২০২১ সালে নতুন অনেক সেবা এনেছে। আবার অনেকগুলো সেবা বন্ধও করে দিয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো গুগল টুলবার। সাপোর্ট পেজে এ সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের জন্য গুগল টুলবার বন্ধ করা হয়েছে। ওয়েবের সব সুবিধা পেতে গুগল ক্রোম ব্যবহার করুন।’

সব মিলিয়ে ২০২১ সালে মোট ২১টি অ্যাপ ও পরিষেবা বন্ধ করেছে গুগল। সেই তালিকায় রয়েছে ২০১৯ সালে লঞ্চ হওয়ার গুগল শপিং মোবাইল অ্যাপও। চলতি বছর যেসব অ্যাপ ও সার্ভিস গুগল বন্ধ করেছে, সেগুলো দেখে নিনে এক নজরে

১. গুগল টুলবার – ২০০০ সালে লঞ্চ হয়েছিল এ টুলবার। এটি একটি ওয়েব ব্রাউজার টুলবার ছিল এবং এতে একটি সার্চ বক্স দেখানো হতো যেখানে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার এবং ফায়ারফক্সের মতো একাধিক ওয়েব ব্রাউজার থাকত।

২. গুগল মাই ম্যাপ – এটি একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। ব্যক্তিগত ব্যবহার এবং মোবাইল ডিভাইস থেকে লোকেশন শেয়ার করার জন্যই অ্যাপটি ব্যবহার হতো। ২০১৪ সালে লঞ্চ হওয়া এ অ্যাপটি বন্ধ করে দিয়েছে গুগল।

৩. গুগল বুকমার্ক – ২০০৫ সালে লঞ্চ হয়েছিল গুগল বুকমার্ক। প্রাইভেট ওয়েব বেসজ বুকমার্কিং এ সার্ভিস কোনো গুগল সার্ভিসের সঙ্গে ইন্টিগ্রেট করা যেত না। ১৬ বছরের এ সার্ভিস চলতি বছর বন্ধ করা হয়েছে।

৪. গুগল চ্যাটবেস – গুগল ডায়লগফ্লো চ্যাটবট এবং অন্যান্য সার্ভিসের জন্য ব্যবহৃত একটি অ্যানালিটিক্স প্লাটফর্ম এ গুগল চ্যাটবেস। গুগল ফান্ডেড এরিয়াল২০ ইনকিউবেটর এ প্ল্যাটফর্ম নিয়ে এসেছিল ২০১৪ সালে। সাত বছর পর ২০২১ সালে বন্ধ করা হয় এ সার্ভিস।

৫. ফিটবিট কোচ – আগে এ প্লাটফর্মেরই নাম ছিল ফিটস্টার। পরে নাম হয় ফিটবিট কোচ। এআই পারসোনালাইজড ওয়ার্কআউটের এ প্লাটফর্ম লঞ্চ করা হয়েছিল ২০১৩ সালে। চলতি বছর বন্ধ করা হয়েছে এ ফিটবিট কোচ প্লাটফর্মও।

৬. ফিটস্টার যোগা – চলতি বছর আরও একটি অ্যাপ বন্ধ করেছে গুগল, যার নাম ফিটস্টার যোগা। এটি একটি ভিডিও বেসড যোগা অ্যাপ। ২০১৪ সালে লঞ্চ হওয়া অনবদ্য এ প্লাটফর্ম নির্ভর করত ইউজারের পারফরম্যান্স এবং স্কিল লেভেলের ওপর।

৭. গুগল টুর বিল্ডার – টুর বিল্ডার ইউজারদের গুগল আর্থের ভেতরে ইন্টার‌্যাক্টিভ টুরস ক্রিয়েট এবং শেয়ার করার অপশন দিত। ছবি এবং ভিডিওর মাধ্যমেই সেই সব শেয়ার করা যেত এত দিন। ২০১৩ সালে লঞ্চ হওয়া সেই প্লাটফর্মই চলতি বছর বন্ধ করে দেয় এ সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট।

৮. গুগল এক্সপেডিশনস – স্কুলের ক্লাসরুমে শিক্ষক এবং পড়ুয়াদের জন্য ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি অভিজ্ঞতা দিতে পারত গুগল এক্সপেডিশনস। গুগল কার্ডবোর্ডের মাধ্যমেই কাজ করত এ বিশেষ প্রোগ্রাম। ২০১৫ সালে লঞ্চ করা হয়েছিল এ প্রোগ্রাম।

৯. গুগল টুর ক্রিয়েটর – ২০১৮ সালে লঞ্চ হয়েছিল এটি। ইউজারদের ৩৬০ ডিগ্রি গাইডেড টুর ক্রিয়েট করতে দিত এটি। ভিআর ডিভাইসের সাহায্যে এটি দেখা যেতে পারে। মাত্র তিন বছর বয়সেই এ গুগল টুর ক্রিয়েটর বন্ধ করা হলো।

১০. গুগল পলি – থ্রিডি অবজেক্ট শেয়ার করার জন্য ক্রিয়েটরদের কাছে গুগল পলি একটি ডিস্ট্রিবিউশন প্লাটফর্ম। ২০১৭ সালে লঞ্চ করা হয়েছিল গুগল পলি।

এ ১০টি গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ ও সার্ভিস ছাড়াও তালিকায় রয়েছে আরও ১৩টি। সেগুলো হলো— গুগল প্লে মুভিজ অ্যান্ড টিভি, গুগল মেজার, জিঙ্গ রেন্ডার, গুগল টাইমলি, গুগল শপিং মোবাইল অ্যাপ, গুগল পাবলিক অ্যালার্টস, গুগল গো লিংক, গুগল ক্রাইসিস ম্যাপ, গুগল কার্ডবোর্ড, গুগল সুইফ্ট ফর টেনসরফ্লো, গুগল টিল্ট ব্রাশ, গুগল লুন এবং গুগল অ্যাপ মেকার।

এসএসএইচ

Link copied