Manosh Chowdhury

মানস চৌধুরী

অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জন্ম: ২৮ মার্চ ১৯৬৯, বরগুনা।

পিতা: চিত্তরঞ্জন সাহা চৌধুরী, মাতা: রত্মা সাহা চৌধুরী।

পড়াশোনা করেছেন মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, মেহেরপুর সরকারি কলেজ,  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ে।

প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ: ৬।

সাক্ষাৎকার গ্রন্থ: ১।

সম্পাদনা গ্রন্থ: ৫।

ভাষা আন্দোলনকে নিছক জাতীয়তাবাদী মোচড়ে আমি দেখি না

ভাষা আন্দোলন কেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে ততটা পরিবেশিত হয়নি এই প্রশ্নটা নানান সময়ে করা হয়েছে আমাকে। নানানজনেই করেছেন। মাস্টারি করি বলে, আর নিছক বইপত্র আর গবেষণা-ডেটার দুনিয়া মেপেই কথা বলি না বলে আমাকে এই প্রশ্ন করা অসঙ্গত নয়।

কেন কেবল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই বন্ধ?

কেন স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় তথা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই কেবল বন্ধ থাকছে? শপিং মল খোলা থাকলে উন্নয়নের মূল যে অর্থকড়ি তা নাচানাচি করতে থাকে। কিন্তু স্কুল-কলেজ খুললে নাচানাচি করবে শিশু-কিশোরবৃন্দ। সেই নাচানাচি থেকে মুদ্রা উত্তোলন সম্ভব হবে না।

উপাচার্য : উপাচারের আশ্চর্য এক পদ

নৃবিজ্ঞানের এক ব্যাচে একজন আচার্য ছিলেন। অমুক কুমার আচার্য। মনে আছে, একদিন বটতলা দুপুরবেলা একত্রে খেতে খেতে ওকে বলছিলাম, এত মানুষ উপাচার্য হবার জন্য জান কুরবান করে দিচ্ছেন...

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মদিন

জাহাঙ্গীরনগরের পরের স্থাপত্যগুলো নিজগুণে আমাকে এই বেদনা থেকে মুক্তি দিয়েছে। কোনো কোনো ভবন পরিকল্পনা দেখলে মনে হয় ওটা বরং মাস্টার ক্লাস। নন্দনবোধ চিরকালই তুল্য বিচারে অনুভূত হয়....

উৎসব, উৎপীড়ন, উৎখাত

এরশাদ সাহেব যখন বাংলা একাডেমিকে হুকুম দিলেন বাংলা বর্ষপঞ্জিটাকে ভারতের বাংলা বর্ষপঞ্জি থেকে স্বতন্ত্র করে বানানোর জন্য, তখন সেই হুকুমের পেছনকার মনস্তত্ত্ব পাঠ করতে...

এখন তাহলে কোন জীবন থেকে নেবেন?

জীবন থেকে নেয়া (১৯৭০) চলচ্চিত্রটি নিয়ে কী কী ধরনের আলাপ করা যেতে পারে তা প্রায় পূর্বলিখিত হয়ে আছে। শৈশব থেকেই এটা নিয়ে হেন কোনো আসর নাই, হেন কোনো গুরুত্বপূর্ণ বোদ্ধা নাই, হেন কোনো জাতীয়-সংস্কৃতি বিষয়ক আলাপ নাই যেখানে ও যেজনে এই ছবিটাকে নিয়ে অত্যুচ্চ আলাপ-আলোচনা হয়নি।

চলচ্চিত্র বিষয়ক এজেন্ডাটা কী?

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়ে শিক্ষিতদের আলাপ-আলোচনা দীর্ঘদিন ধরে মোটামুটি তিনটা সম্পর্কিত বিষয়বস্তু নিয়ে ঘুরপাক খাচ্ছিল। আরও সূক্ষ্মভাবে বললে বিষয়বস্তুর চেয়ে মোড্যালিটি বা ভঙ্গি বলাই ঠিক হবে।