ফের বগুড়া সদর উপজেলা আ.লীগের নেতৃত্বে সফিক-রাজ

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, বগুড়া

২৪ মে ২০২২, ০৮:২০ পিএম


ফের বগুড়া সদর উপজেলা আ.লীগের নেতৃত্বে সফিক-রাজ

বগুড়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আবু সুফিয়ান সফিক এবং মাফুজুল ইসলাম রাজ সাধারণ সম্পাদক পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৪ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার মল্লীমঙ্গল হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে তাদের নাম ঘোষণা করেন প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। 

এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রথম অধিবেশন শেষে উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। পরে প্রধান অতিথি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের নাম আহ্বান করেন। এ সময় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় পুনরায় সভাপতি পদে আবু সুফিয়ান সফিক এবং মাফুজুল ইসলাম রাজ সাধারণ সম্পাদক পদে আগামী তিন বছরের জন্য নির্বাচিত হন। 

এর আগে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে প্রধান অতিথি এসএম কামাল বলেন, বৈশ্বিক মহামারি ও রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধে যখন বিশ্বের উন্নত দেশগুলো হিমশিম খাচ্ছে, সেই সমস্ত দেশের অর্থনীতিতে যখন ধস নেমেছে, বিশ্বে যখন খাদ্য ও জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে, উন্নত দেশ যুক্তরাষ্ট্রের শতকরা ২৫ ভাগ লোক এক বেলা না খেয়ে থাকে, সেই সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সততা, সাহসিকতা, দেশপ্রেম ও সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে বাংলাদেশকে অর্থনীতির ভিত্তির ওপর দাঁড় করিয়েছেন। মানুষের অন্ন , বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার নিশ্চয়তা দিয়ে যাচ্ছেন। সেই প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে আজকে ৭৫ এর খুনি এবং ২১ শে আগস্টের গ্ৰেনেড হামলার প্রধান আসামি তারেক জিয়ার প্রতিনিধিরা ষড়যন্ত্র করছে, অপপ্রচার চালাচ্ছে। 

তিনি বলেন, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি-জামায়াতসহ সকল অপশক্তির ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারের দাঁতভাঙা জবাব দিতে হবে।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সুফিয়ান সফিকের সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মজিবর রহমান মজনু, প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাফুজুল ইসলাম রাজের সঞ্চালনায় সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য শাহাবুদ্দিন ফারাজী। 

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের নেতা ডা. মকবুল হোসেন, অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন মুকুল, প্রদীপ কুমার রায়, অ্যাডভোকেট তবিবুর রহমান তবি, এ কে এম আসাদুর রহমান দুলু, শাহরিয়ার আরিফ অপেল, শাহাদত আলম ঝুনু, অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন নবাব, আকতারুজ্জামান ডিউক, সুলতান মাহমুদ খান রনি, আল রাজী জুয়েল, আনিছুজ্জামান মিন্টু, নাসরিন রহমান সীমা, অধ্যক্ষ শামসুল আলম জয়, আনোয়ার পারভেজ রুবন, এস এম শাজাহান, খালেকুজ্জামান রাজা, আ.ন. ম আহসানুল হক, আব্দুস সালাম, আলমগীর বাদশা, সাজেদুর রহমান সাহীন, আমিনুল ইসলাম ডাবলু, সাবিয়া সাবরিন সরকার পিংকি, রাশিকুজ্জামান রাজন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরএআর

Link copied