শিশু রহমানের পরিবারের স্বপ্ন পূরণ করলেন ওসি মহসিন

Dhaka Post Desk

আফজালুল হক, চুয়াডাঙ্গা

২৯ মে ২০২২, ০৭:৪১ এএম


অডিও শুনুন

ছোট ভাইকে কোলে করে শিশু আব্দুর রহমানকে আর শহর ঘুরে সাহায্য তুলতে হবে না। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিনের উদ্যোগে আব্দুর রহমানের বাবাকে স্বপ্ন পূরণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যান দেওয়া হয়েছে।  

ভ্যান পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন আব্দুর রহমানের বাবা আক্তার বিশ্বাস। এখন আর কারও কাছে হাত পাতবে না রহমান ও তার পরিবার। শনিবার (২৮ মে) দুপুরে আক্তার বিশ্বাসের কাছে ভ্যানের চাবি হস্তান্তর করেন ওসি মোহাম্মদ মহসিন।

ওসি মহসিন বলেন, স্বপ্ন পূরণ নামে একটি ফাউন্ডেশনের সঙ্গে জড়িত আছি। এই ফাইন্ডেশনের মাধ্যমে আমরা মানুষের স্বপ্ন পূরণ করি। যেমন- কেউ চিকিৎসক হতে চাই, টাকার অভাবে পড়তে পারছে না, কেউ পড়াশোনা করতে চাই কিন্তু বই কেনার সামর্থ্য নেই, আমরা সেসব মানুষের স্বপ্ন পূরণের অংশীদার হয়। ভ্যানটি যাকে দিলাম সেই ব্যক্তি আয়ের উৎসের জন্য একটি ভ্যান চেয়েছিল। তার ছোট্ট ছেলে আব্দুর রহমান স্কুলে যাবে। 

আক্তার বিশ্বাস বলেন, আমার স্ত্রীর মৃত্যুর পর বড় ছেলে আব্দুর রহমান ছোট ছেলেকে কোলে নিয়ে সাহায্য তুলে সংসার চালাচ্ছে। সড়ক দুর্ঘটনার পর আমিও কাজ করতে পারি না। ওসি সাহেবের কাছে একটি ভ্যান চেয়েছিলাম। তিনি আমাকে ভ্যান দিয়েছেন। স্বপ্ন পূরণ ফাউন্ডেশনকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, ছেলে আর সাহায্য তুলবে না। তাকে স্কুলে পাঠাব। পড়াশোনা করাব। 

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি আক্তার বিশ্বাস ফেরি করে বাদাম বিক্রির সময় আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জ এলাকায় একটি ট্রাক পেছন থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। পরে পথচারীরা উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। টাকার অভাবে ভালো চিকিৎসা করতে না পেয়ে তিনি পঙ্গুত্ববরণ করেন। তাই বাধ্য হয়ে আক্তার বিশ্বাসের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন দুই বছরের ছোট ছেলেকে কোলে নিয়ে হুইল চেয়ারে বসে শহরের বিভিন্ন স্থানে মানুষের কাছে সাহায্য চাইতেন। আর হুইল চেয়ার ঠেলত বড় ছেলে আবদুর রহমান। এভাবেই চলছিল তাদের সংসার। 

কিন্তু কিডনি সমস্যা এবং জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে গত বছরের ২০ ডিসেম্বর চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ফার্মপাড়ার ভাড়া বাড়িতে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যান মা আম্বিয়া খাতুন। এরপর শুরু হয় আব্দুর রহমানের জীবনযুদ্ধ। ফলে বাধ্য হয়ে সংসারের বোঝা তুলে নিতে হয় কাঁধে।

আফজালুল হক/এসপি

Link copied