এক যুগ পর ৪ সন্তানের জন্ম, বাঁচেনি কেউই

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নাটোর

১০ আগস্ট ২০২২, ০৮:২৪ পিএম


এক যুগ পর ৪ সন্তানের জন্ম, বাঁচেনি কেউই

নাটোরে বিয়ের এক যুগ পর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দেন রিতা রানী নামে এক গৃহবধূ। পরিবারে খুশির বন্যা বয়ে যায়। কিন্তু জন্মের পরপরই মারা যায় চার নবজাতক। এতে সবার আনন্দ বিষাদে পরিণত হয়।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার পৌর শহরের ঋষিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তাদের মধ্যে তিনটি ছেলে ও ১টি মেয়ে নবজাতক ছিল।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে তার স্ত্রী রিতা রানী দাস বাড়িতেই তিন ছেলে ও এক মেয়েসন্তানের জন্ম দেন। জন্মের পরপরই নবজাতকদের শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাদের বনপাড়ার আমিনা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক নবজাতকদের মৃত ঘোষণা করেন। পরে তাদের স্থানীয় শ্মশানে দাহ করা হয়।

নবজাতকদের বাবা নিখিল চন্দ্র দাস জানান, গতকাল রাত ৯টায় আমার স্ত্রীর প্রসববেদনা ওঠে। পরে আমাদের কোলজুড়ে আসে চার সন্তান। বিয়ের ১২ বছর পর আমরা একসঙ্গে চার সন্তানের মুখ দেখি। কিন্তু জন্মের পরই তারা সবাই মারা যায়। আমাদের সব আনন্দ বিষাদে পরিণত হয়েছে।

আমিনা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আনসারুল ইসলাম জানান, নবজাতকগুলো অপরিণত অবস্থায় ভূমিষ্ঠ হওয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। মাত্র ২৫ সপ্তাহে বাচ্চাগুলো ভূমিষ্ঠ হয়েছিল বলে জানান তিনি।

তাপস কুমার/এনএ

Link copied