সময় থাকতে খাতা কেড়ে নেওয়ায় অজ্ঞান পরীক্ষার্থী, হাসপাতালে ভর্তি

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, লালমনিরহাট

২২ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৪১ পিএম


সময় থাকতে খাতা কেড়ে নেওয়ায় অজ্ঞান পরীক্ষার্থী, হাসপাতালে ভর্তি

করিম উদ্দিন সরকারি পাবলিক  ডিগ্রী কলেজ

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় নির্ধারিত সময়ের আগেই খাতা কেড়ে নেওয়ায় সুমাইয়া বিনতে আনিছ নামে এক পরীক্ষার্থী কেন্দ্রেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) কালীগঞ্জ উপজেলায় করিম উদ্দিন সরকারি পাবলিক  ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

অসুস্থ পরীক্ষার্থী সুমাইয়া বিনতে আনিছ একই উপজেলা সদরের তুষভান্ডার মহিলা ডিগ্রী কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। 

হাসপাতালে ভর্তি ওই পরীক্ষার্থী জানান, যথানিয়মে এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে ইসলামের ইতিহাস ও সাংস্কৃতি প্রথম পত্র বিষয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন তিনি। প্রথমার্ধের এমসিকিউ পরীক্ষার নির্ধারিত সময়ের ৫ মিনিট থাকতেই দায়িত্বে থাকা কক্ষ পরিদর্শক করিম উদ্দিন সরকারি পাবলিক কলেজের শিক্ষক আজিজার রহমান তার উত্তরপত্র কেড়ে নেন। ৫ মিনিট সময় থাকায় উত্তরপত্র না নিতে অনুরোধ জানালে ক্ষেপে যান শিক্ষক। 

একপর্যায়ে জোর করে উত্তরপত্র কেড়ে নিয়ে শিক্ষক আজিজার রহমান বলেন, উত্তরপত্র কেড়ে নিয়েছি প্রয়োজনে থানায় মামলা করো। এটা শুনে নিজ আসনে জ্ঞান হারান পরীক্ষার্থী সুমাইয়া। পরে দায়িত্বপ্রাপ্তরা তাকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। 

অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ায় পরীক্ষার দ্বিতীয়ার্ধের রচনামূলকের লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি সুমাইয়া। খবর ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থী আর অভিভাবকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে কক্ষ পরিদর্শক শিক্ষক আজিজার রহমানের শাস্তির দাবি জানান। 

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল মান্নান বলেন, বিনা কারণে নির্ধারিত সময়ের আগে উত্তরপত্র কেড়ে নেওয়ার কোনো নিয়ম নেই। অসুস্থ পরীক্ষার্থীর অভিভাবক মৌখিকভাবে বিষয়টি অবগত করেছেন। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিয়াজ আহমেদ সিপন/আরকে 

Link copied