ভুয়া এনজিও খুলে গ্রাহকের কোটি টাকা হাতিয়ে নিতেন তারা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ 

২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭:৪৫ এএম


ভুয়া এনজিও খুলে গ্রাহকের কোটি টাকা হাতিয়ে নিতেন তারা

ভুয়া এনজিওর মূলহোতা ও মাঠ কর্মীসহ ৬ জন

গ্রামের সাধারণ মানুষকে অতিরিক্ত লাভ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল বাংলাদেশ আইডিয়াল সোসাইটি ইমপ্রুভমেন্ট ফাউন্ডেশন-বিসিফ নামের একটি ভুয়া এনজিও। এমনকি ঋণ দেওয়ার সময় এর বিপরীতে গ্রাহকদের থেকে নেওয়া ফাঁকা চেকের মামলা দেওয়ার হুমকি দিয়ে এনজিওটি আদায় করত অতিরিক্ত টাকা। 

গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এমনই এক ভুয়া এনজিও ও প্রতারক চক্রের মূলহোতা ও মাঠ কর্মীসহ ৬ জন সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাব-৫, সিপিসি-১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্প। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) মধ্যরাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‍্যাব ক্যাম্প থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করা হয়। 

র‍্যাব জানায়, মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে নাচোল পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মাস্টার পাড়াস্থ সুফিয়ান বিদ্যা নিকেতন অ্যান্ড প্রাইভেট হোম সংলগ্ন বিসিফের অফিস রুম হতে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় ভুয়া পাসবই, সীল, বিভিন্ন ব্যাংকের ফাঁকা চেক জব্দ করে র‍্যাব। 

আটককৃতরা হলেন- প্রতারক চক্রের মূলহোতা ও ভুয়া এনজিওর ম্যানেজার নাচোল উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের খলসী গ্রামের হাজী মো. জাকারিয়ার ছেলে মো. ইব্রাহিম (৩৭), রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার জাহানাবাদ গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে শাখা ব্যবস্থাপক রায়হান উদ্দিন (৩০), নাচোল উপজেলার গাছপুকুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে ক্যাশিয়ার আতিকুর রহমান (২৫), মুরাদপুর গ্রামের ইসরাইল হোসেনের ছেলে মাঠকর্মী ফরহাদ হোসেন (৩১), মাধবপুর গ্রামের আব্দুল হানিফের ছেলে মাঠকর্মী শাহ আলম (২৪), খেসবা গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে মাঠকর্মী রেজাউল করিম (২৪)। 

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব জানায়, এই চক্রটি সংঘবদ্ধভাবে গ্রামের সহজ সরল সাধারণ মানুষের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ আইডিয়াল সোসাইটি ইমপ্রুভমেন্ট ফাউন্ডেশন-বিসিফ নামের একটি ভুয়া এনজিও প্রতিষ্ঠা করে। এই এনজিওতে বিভিন্ন গ্রাহককে অধিক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে গরিব অসহায় লোকদের বিনিয়োগ করতে এবং টাকা ঋণ নেওয়ার জন্য উস্কানি দেয়। এমনকি ঋণ দেওয়ার বিপরীতে গ্রাহকদের থেকে ফাঁকা চেক নিয়ে পরে ব্ল্যাকমেইল করে অতিরিক্ত টাকা আদায় করতেন তারা। পরে গ্রাহকের জমাকৃত লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিতেন। 

র‍্যাব আরও জানায়, অসংখ্য ভূক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে চাঁপাইনবাগঞ্জের র‍্যাবের চৌকষ গোয়েন্দা দল দীর্ঘদিন ধরে এ বিষয়ে ছায়া তদন্ত শুরু করে। সম্প্রতি গণমাধ্যমে এনওজিও-র বিষয়ে ব্যাপক লেখালেখি হলে র‍্যাব তা আমলে নিয়ে এই অভিযান করতে উদ্বুদ্ধ হয়। এতে বাংলাদেশ আইডিয়াল সোসাইটি ইমপ্রুভমেন্ট ফাউন্ডেশন-বিসিফের প্রতারক চক্রের মূলহোতাসহ ৬ জনকে আটক করা হয়। মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরী অথরিটি-এমআরএ'র অনুমোদন ছাড়াই তারা দীর্ঘদিন ধরে ক্ষুদ্র ঋণের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে, যা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি ও অপরাধ। 

আটককৃতদের বিরুদ্ধে নাচোল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানায়, র‍্যাব-৫ সিপিসি-১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্প। এছাড়াও র‍্যাব নিয়মিত জঙ্গী, সন্ত্রাসী, সংঘবদ্ধ অপরাধী, অস্ত্রধারী অপরাধী, মাদক, ভেজাল পণ্য, ছিনতাইকারীসহ হেরোইনের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার করেছে বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়। 

জাহাঙ্গীর আলম/আরকে  

Link copied