রাসিক নির্বাচন

রাজশাহীর ১৬ বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

০৫ জুন ২০২৩, ১০:৪৮ পিএম


রাজশাহীর ১৬ বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় বিএনপির ১৬ নেতার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে। বিএনপির এই ১৬ নেতা দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে রাসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এই ১৬ জনের তালিকায় ১১ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ও ৫ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন।

গতকাল রোববার (৪ জুন) রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এরশাদ আলী ঈশা ও সদস্য সচিব মামুন অর রশিদ স্বাক্ষরিত সুপারিশপত্র বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

ওই বিএনপি নেতারা হলেন- রাজপাড়া থানা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী বদিউজ্জামান বদি, ১১ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি আবু বকর কিনু, শাহমখদুম থানা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী মো. টুটুল, শাহমখদুম থানা বিএনপি সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ও ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আব্দুস সোবহান লিটন, রাজশাহী মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি ও ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী বেলাল হোসেন, রাজশাহী মহানগর যুবদলের সাবেক শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ও ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী রনি হোসেন রুহুল, রাজশাহী মহানগর যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী নুরুজ্জামান টিটু, ২২ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা রিপন, বোয়ালিয়া থানা যুবদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আলিফ আল মাহমুদ লুকেন, মহানগর বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আনোয়ারুল আমিন আজব, মতিহার থানা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী আশরাফুল হাসান বাচ্চু।

এছাড়াও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে লড়ছেন মহানগর মহিলা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মুসলিমা বেগম বেলী। তিনি ৭, ৮, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী। মহানগর মহিলা দলের বন ও পরিবেশক বিষয়ক সম্পাদক আলতাফুন নেসা পুতুল। তিনি ১০, ১১, ১২ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী। মহানগর মহিলা দলের ১ নম্বর যুগ্ম সম্পাদক সামসুন নাহার। তিনি ১৩, ১৪, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী। মহানগর মহিলা দলের সহ-সভাপতি শাহনাজ বেগম শিখা। তিনি ২২, ২৩, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী। এছাড়া মহানগর মহিলা দলের ৪ নম্বর যুগ্ম সম্পাদক আয়েশা খাতুন মুক্তি। তিনি ও ২৫, ২২৮ ও ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী।

সুপারিশপত্রে বলা হয়েছে, যেহেতু এরা দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে  কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে, সেহেতু উক্ত নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আহ্বান জানানো হলো।

এ বিষয়ে রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এরশাদ আলী ঈশা ঢাকা পোস্টকে বলেন, দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ১৬ প্রার্থী রাসিক নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তাদের মধ্যে ১১ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী এবং ৫ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী। আমরা তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রে সুপারিশ করেছি।

শাহিনুল আশিক/আরএআর

Link copied