বরের পাশে বসেছিলেন কনের ভাবি, পালানোর চেষ্টা কাজির

Dhaka Post Desk

উপজেলা প্রতিনিধি, হাকিমপুর (দিনাজপুর)

০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৩২ এএম


বরের পাশে বসেছিলেন কনের ভাবি, পালানোর চেষ্টা কাজির

বিরামপুরে বরের পাশে কনে (বা দিকে) বেশে বসলেন ভাবি (মাঝে)

দিনাজপুরের বিরামপুরে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ে দেওয়ার সময় কাজি রেহান রেজাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড ও বর রুবেল হোসেনকে ২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের ন্যাটাশন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এই সাজা প্রদান করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্ত নিকাহ রেজিস্ট্রার (কাজি) রেহান রেজা (৪৭) চেংমারী গ্রামের হুমাউন রেজার ছেলে। তিনি খানপুর ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার হিসেবে কাজ করছিলেন। বর রুবেল ইসলাম (২২) নবাবগঞ্জ উপজেলার কুশদহ ইউনিয়নের সেকেন্দার আলী ছেলে।

Dhaka Post
কাজি রেহান রেজা (বা দিকে)

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার সরকার জানান, বৃহস্পতিবার রাতে খানপুর ইউনিয়নের ন্যাটাশন এলাকায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন চলছে, এমন খবরে থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন তিনি।

বিয়ের জন্য নিকাহ রেজিস্ট্রার খসরা লেখাও শেষপর্যায়ে। এ সময় তার উপস্থিতি টের পেয়ে কাজি দৌড়ে পালাতে চেষ্টা করেন আর বরের পাশে কনে সেজে মেয়ের ভাবি বসে পড়েন। বিষয়টি তার নজরে আসে বলে জানান ইউএনও পরিমল কুমার সরকার।

তিনি আরও জানান, ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীর বাল্যবিয়ে হচ্ছে এমন খবরের সত্যতা পেয়েছি। রুবেল হোসেনকে ২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে। আর নিকাহ রেজিস্ট্রার কাজি রেহান রেজাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

এমএসআর

Link copied