বিদায়বেলায় সুসজ্জিত গাড়িতে বাড়ি ফিরলেন দুই পুলিশ কর্মকর্তা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, লক্ষ্মীপুর

০১ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:২৪ পিএম


বিদায়বেলায় সুসজ্জিত গাড়িতে বাড়ি ফিরলেন দুই পুলিশ কর্মকর্তা

লক্ষ্মীপুরে কর্মরত অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মাখন লাল রায় ও ট্রাফিক বিভাগের বাহার উদ্দিনকে সুসজ্জিত গাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শনিবার (১ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা পুলিশ লাইন্স থেকে ফুল দিয়ে সাজানো আলাদা দুটি গাড়িতে তাদেরকে নিজ নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

মাখন লাল রায় কমলনগর থানা পুলিশের পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ও বাহার উদ্দিন ট্রাফিক বিভাগের উপপরিদর্শক (টিএসআই) পদে কর্মরত ছিলেন। মাখন লাল রায় নোয়াখালী জেলা সদরের বাসিন্দা ও বাহার বেগমগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) পলাশ কান্তি নাথ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মংনেথোয়াই মারমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মিমতানুর রহমান, কমলনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন ও রায়পুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানান।

Dhaka Post

এ সময় পুলিশ সুপার তাদের সঙ্গে হাত মেলান ও তাদেরকে বিভিন্ন দিক নির্দেশনামূলক পরামর্শ দেন। 

অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মাখন লাল রায় ও বাহার উদ্দিন জানান, পুলিশ বিভাগ তাদের আরেকটি পরিবার ছিল। বিদায়বেলা খুবই কষ্টের। বিদায়ের সময় পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান যে সম্মান জানিয়েছেন এটি সারাজীবন তাদের মনে থাকবে। এটি অবসরপ্রাপ্ত যে কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ।

কমলনগর থানার ওসি মোসলেহ উদ্দিন বলেন, মাখন লাল রায়ের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। তিনি খুব ভালো মানুষ ও দক্ষ অফিসার ছিলেন। বিদায়বেলায় তাদের সঙ্গে থাকতে পেরেছি, এটি বড় পাওয়া।

পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান জানান, জীবনের অর্ধেক সময় চাকরিতে তারা দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রতিটি বিদায়ই বেদনার। ছোট্ট আয়োজনে তাদের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করা হয়েছে। তাদেরকে হাসিমুখে বিদায় দেওয়াটা অনেক বড় পাওয়া।

হাসান মাহমুদ শাকিল/আরএআর

Link copied