খালেদা জিয়ার যদি কিছু হয়, তবে আবার যুদ্ধ হবে : আফরোজা

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, লালমনিরহাট

০৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৪:১৭ পিএম


খালেদা জিয়ার যদি কিছু হয়, তবে আবার যুদ্ধ হবে : আফরোজা

জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি আফরোজা আব্বাস বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে বর্তমানে বন্দি অবস্থায় আছেন। কেমন আছেন তিনি, কেউ জানেন না। দেশের বাইরে চিকিৎসার জন্য আবেদন করলেও সরকারের মন গলছে না। খালেদা জিয়ার যদি কিছু হয়, তবে আবার যুদ্ধ হবে।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) দুপুরে লালমনিরহাট মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের বুড়িরবাজার বিএনপির কার্যালয় জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকারের প্রধানমন্ত্রী নারী হওয়ার পরও বর্তমানে নারীরা লাঞ্ছিত ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। বর্তমান সরকারের আমলে চারদিকে নারীরা ধর্ষিত হচ্ছেন। এসব খেয়াল না রেখে গুম করছেন নেতাকর্মীদের।

তিনি আরও বলেন, ওয়ান-ইলেভেনের সময় শেখ হাসিনা পালিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ১৮ কোটি মানুষের কথা তিনি ভেবে বেগম খালেদা জিয়া দেশের মানুষের কথা ভেবেছেন। সেই মানুষটি আজ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সুচিকিৎসা ও দেওয়া হচ্ছে না। তাই তাকে মুক্ত করতে আবারও যুদ্ধ করতে হবে।

তরুণ-যুবকরা বেকার হয়ে পড়ে রয়েছে। অনেকেই ভ্যান-রিকশা চালিয়ে সংসার চালাচ্ছেন। আর অশিক্ষিত ছাত্রলীগ-যুবলীগের কর্মীরা বড় বড় পদে চাকরি পেয়ে ঘুষের টাকা খাচ্ছে। এভাবে দেশ চলতে পারে না। বর্তমান অবৈধ সরকার প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে চলছে। প্রশাসনের কাজ জনগণের নিরাপত্তা দেওয়া। তা না করে অন্যায়ভাবে হামলা-মামলা দিয়ে গুম-খুন করছে তারা।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আফরোজা আব্বাস বলেন, পুলিশ প্রশাসনকে রেখে আসেন, বিএনপি আর আওয়ামী লীগের কর্মীদের মাঝে যুদ্ধ হবে। দেখি কারা যেতে। দেশের মানুষ যাকে চাইবে, তারাই নির্বাচিত হবেন। কিন্তু তারা এটি করবেন না। পুলিশ ও প্রশাসন তো বর্তমানে আওয়ামী লীগের সরকারের কাছে জিম্মি হয়ে আছে। তাই তাদের তৈল দিতে ব্যস্ত।

পুলিশ প্রশাসনের উদ্দেশে তিনি বলেন, বর্তমানে জনসভায় পুলিশ প্রশাসনও বক্তব্য রাখে। যা বিএনপি সরকারের আমলে ছিল না। প্রশাসনের রাজনৈতিক বক্তব্যেই পরিষ্কার তারা কার হয়ে কাজ করছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু। উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নাজমুন নাহার বেবী, সাইদা রহমান জোৎস্না, রোজিনা ইসলাম, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের রংপুর বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রিনা পারভিন, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাংস্কৃতিক সম্পাদক মমতাজ হোসেন লিপি। এ ছাড়া সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মমিনুল হকসহ জেলা বিএনপির নেতারা।

পরে দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে অ্যাডভোকেট জিন্নাত আরা ফেরদৌস রোজিকে জেলা সভাপতি ও শামছি রহমান নুপুরকে সিনিয়র সহসভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আঞ্জুমান আরা শাপলা করে কমিটি ঘোষণা করেন।

নিয়াজ আহমেদ সিপন/এনএ

Link copied