রংপুর সিটি বাজারে হরতাল, দুর্ভোগে ক্রেতারা

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৩৪ পিএম


রংপুর সিটি বাজারে হরতাল, দুর্ভোগে ক্রেতারা

প্রতিশ্রুত উন্নয়ন ও সংস্কারের দাবিতে ব্যবসায় টানা ১২ ঘণ্টার বিরতি (হরতাল) কর্মসূচি পালন করছে রংপুর সিটি বাজার ব্যবসায়ী সমিতি। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি সন্ধ্যা ৬টায় শেষ হবে। 

দাবি আদায়ে বাজারের সকল দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছেন ব্যবসায়ীরা।

দুপুরে বাজারের প্রধান ফটকের পাশে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে দীর্ঘ দিনেও কোনো উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সমিতির নেতৃবৃন্দ। এ সময় তারা সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে আধুনিক মানের টয়লেট নির্মাণ, গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা, প্রধান ফটক নির্মাণ, বাজারের রাস্তা প্রশস্ত ও সংস্কার, পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দাবি তুলে ধরেন।

সিটি বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোস্তফা জামানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবু তুষার কান্তি মণ্ডল। এ ছাড়া বক্তব্য রাখেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন (ছোটবাবু), সহসভাপতি সিরাজ মিয়া, কোষাধ্যক্ষ নজরুল মল্লিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ।  

Dhaka Post

সভায় বক্তারা বলেন, ৩৫ বছর ধরে রংপুরের সর্ববৃহৎ এই বাজারের কোনো উন্নয়ন হয়নি। বিভিন্ন সময়ে শুধু উন্নয়ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধোকা দেওয়া হয়েছে। বাস্তবায়নে এখন পর্যন্ত কোনো যুগোপযোগী উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। অথচ প্রতি বছর সিটি বাজার থেকে দুই কোটির বেশি রাজস্ব আদায় করা হয়।

গত বছর মার্চ মাসে এসব দাবি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছিল। পরে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গে বসে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ বৈঠক করেছে। সেই বৈঠকে শুধুই আশার বাণী শোনানো হয়। বাস্তবে গত নয় মাসে জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যার সমাধানে কোনো পদক্ষেপ বা কার্যক্রম শুরু হয়নি। এ সময় দাবি আদায় না হলে আগামীতে আরও কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন ব্যবসায়ী নেতারা।

এদিকে, নগরের অন্যতম বৃহৎ সিটি বাজার বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকার মানুষজন বাজারে এসে ফিরে গেছেন। পাইকারী ও খুচরা বিক্রির এই বাজার বন্ধ থাকায় নগরের অন্যান্য কাঁচাবাজারে ক্রেতাদের চাপ বাড়ায় দামে কিছুটা প্রভাব পড়েছে।

সিটি বাজারে কাঁচা সবজিসহ প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্য কিনতে এসে ফিরে যান রবিউল ইসলাম। তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, সিটি বাজারে যেকোনো পণ্য অন্যান্য বাজারের চেয়ে একটু সাশ্রয়ী। এখানে কিছু ক্রয় করলে কেজিতে ২ থেকে ৪ টাকা কম মূল্যে পাওয়া যায়। কিন্তু আজকে বাজার বন্ধ থাকায় একটু বাড়তি দামে অন্য বাজার থেকে কিনতে হবে।

এদিকে সিটি বাজার বন্ধ থাকায় রংপুর জেলার বিভিন্ন এলাকার সবজি ব্যবসায়ীরাও বিপাকে পড়েছেন। তাদের অনেককেই নগরের বিভিন্ন এলাকার বাজারের আশপাশে অস্থায়ী ভ্যানে ও বিভিন্ন জায়গায় ফেরি করে কাঁচামাল বিক্রি করতে দেখা গেছে। 

এদিকে ব্যবসায়ীদের দাবি ও  অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। 

ফরহাদুজ্জামান ফারুক/আরআই

Link copied