শিক্ষকদের শ্লীলতাহানি, যুবকের ৬ মাসের কারাদণ্ড

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, নোয়াখালী

২০ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:৪৬ পিএম


শিক্ষকদের শ্লীলতাহানি, যুবকের ৬ মাসের কারাদণ্ড

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে প্রকাশ্যে বিদ্যালয়ের নারী শিক্ষকদের শ্লীলতাহানির ঘটনায় অভিযুক্ত সাহিদ (২২) নামের এক যুবককে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার জিরতলী ইউনিয়নের জিরতলী ইউনিয়ন উচ্চবিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। বেগমগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামরুল হোসেন চৌধুরীর আদালত তাকে এ দণ্ড দেন।

কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত সাহিদ বেগমগঞ্জ উপজেলার জিরতলী ইউনিয়নের জামাল হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, যুবক সাহিদ দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে তাকে কয়েকবার সতর্ক করা হলেও তিনি তা ক্রমাগত করে যান এবং দিন দিন আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে জোর করে শ্লীলতাহানির সময় বেগমগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. কামরুল হোসেন চৌধুরী হাতেনাতে যুবককে ধরে ফেলেন। এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়ে নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠান।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামরুল হোসেন চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত যুবক দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করে আসছিল। আজ একই বিদ্যালয়ের শিক্ষককে শ্লীলতাহানির সময় হাতেনাতে ধরা হয়। পরবর্তীতে শ্লীলতাহানি ও ইভ টিজিংয়ের অপরাধে তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছি।

হাসিব আল আমিন/এনএ

Link copied