দুঃসহ সময় পার করে বেজবাবার ফিরে আসার গল্প

Dhaka Post Desk

বিনোদন ডেস্ক

০১ জানুয়ারি ২০২২, ০৮:৫৬ পিএম


দুঃসহ সময় পার করে বেজবাবার ফিরে আসার গল্প

দেশের ব্যান্ড মিউজিকের অন্যতম তারকা সাইদুস সুমন। যিনি বেজবাবা নামে অধিক পরিচিত। জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘অর্থহীন’-এর গায়ক তিনি। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করছেন সুমন। শুরুতে ক্যান্সারে আক্রান্ত হলেও মরণব্যাধি এই রোগ থেকে সেরে উঠেছেন। তবে এখনও চলছে ক্যান্সারের ফলোআপ চিকিৎসা।

সদ্য গত হওয়া বছরের প্রথম দিকে সুমনের অবস্থা ছিল ভয়াবহ। দিনরাত ২৪ ঘণ্টা বিছানায় পড়ে থাকতেন। এরপর বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নিয়ে অনেকটাই সুস্থ হয়েছেন। বছরের শেষ দিকে তিনি ফিরেছেন কনসার্টেও। যা ছিল ব্যান্ড মিউজিকপ্রেমীদের জন্য অনেক বড় সুখবর।

দুঃসহ সময়টা পার করে কীভাবে পুরোদমে মিউজিকে ফিরেছেন, সেই গল্প ফেসবুকের পাতায় জানালেন সুমন। তিনি লিখেছেন, ‘২০২১ সালের শুরুটা ভয়ানক খারাপ ছিল আমার। দিনরাত ২৪ ঘণ্টা বিছানাতেই পরে থাকতাম। স্পাইনের জটিলতার কারণে কিছুক্ষণের জন্য দাঁড়াতে অথবা হাঁটতে পারলেও দু-তিন মিনিটের বেশি বসে থাকাটা ছিল পুরোপুরি অসম্ভব। অসহ্য যন্ত্রনায় মাঝে মধ্যে তাকিয়ে থাকতে পারতাম না, জ্ঞান হারিয়ে ফেলতাম। পেইনকিলার ইনজেকশন দিলে কিছুক্ষণের জন্য ঠিক থাকতাম। কিন্তু সেটার অ্যাফেক্ট চলে গেলেই ব্যাথায় চিৎকার করে উঠতাম।’

ওই সময় এমন ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা প্রকাশ্যে আনেননি সুমন। তার ধারণা ছিল, সুস্থ হলে তবেই জানাবেন সব। মার্চ মাসে তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে বিদেশে নেওয়া হয়। তখন বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন অফিসার তাকে দেখে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন বলে জানান সুমন। ওই সময়টায় তার মনের ভেতর সন্দেহে জেগেছিল, ‘আবার দেশে ফিরে আসতে পারবো তো?’

মন যখন বারবার দুর্বল হয়ে যাচ্ছিল, তখন সুমন ভাবলেন ঝলমলে অতীতের কথা। তিনি মানুষকে উৎসাহ দিয়ে এসেছেন সারাজীবন। এখন তার তো এমন ভেঙে পড়া সাজে না। তাই নিজেকে শক্ত করলেন। হাল না ছেড়ে সুস্থ হওয়ার প্রত্যয় নিয়ে দেশ ছেড়ে উড়াল দেন ভিনদেশে।

Dhaka Post

বেজবাবা তার পোস্টে লিখেছেন, ‘আমার সুস্থ হতে কতদিন লেগেছে জানেন? ১ মাস ১৭ দিন। জী, ঠিক ১ মাস ১৭ দিন! মে মাসের ২৮ তারিখ আমি ৬ কিলোমিটার টানা হেটেছি। ২ ঘন্টা টানা চেয়ারে বসে থেকেছি। রেগুলার ফিজিওথেরাপি করে আরো ৪ মাস পর ঢাকা ফিরেছি। তারপর আপনাদের মাঝে আবার ফিরে আসার ঘটনাটা আপনারা অনেকেই জানেন।’

ফিরে আসার এই গল্প সুমন প্রকাশ্যে এনেছেন কেবল মানুষকে উৎসাহ দিতে। একটি বার্তা দিতে। তার ভাষ্য, ‘যত যাই হোক, কখনো হাল ছাড়বেন না। সবসময় মনে রাখবেন গোটা পৃথিবীটা মাঝেমধ্যেই অনেক অন্ধকার লাগতে পারে, মনে হতেই পারে আপনিই শুধু একা, আপনার সাথে আর কেউ নেই। কিন্তু মনে রাখবেন, এই কোটি কোটি মানুষের মধ্যে কোনো না কোনো একজন মানুষ আছে, যে কিনা আপনাকে ভয়ংকর ভালবাসে, সেই ভালবাসার কোন সীমা পরিসীমা নেই! আপনি একটু ধৈর্য ধরে তাকিয়ে থাকলেই সেই মানুষটিকে দেখতে পাবেন। আনকন্ডিশনাল লাভ-এর চেয়ে ভয়ংকর সুন্দর আর কী হতে পারে! অন্ধকার মানেই সামনে আলো আসছে। আলো ছাড়া অন্ধকারের কোন অস্তিত্ব নেই!’

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বিশাল কনসার্ট। সেখানে পারফর্ম করেছেন বেজবাবা সুমন। তাকে ঘিরে তরুণদের মাঝে দেখা গিয়েছিল সীমাহীন উন্মাদনা। এছাড়া গেল বছরে নতুন একটি গানও উপহার দিয়েছেন তিনি।

কেআই

Link copied