বন্যা-ভূমিধসে বিপর্যস্ত নেপালে নিহত বেড়ে ৭৭

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২০ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৮ পিএম


বন্যা-ভূমিধসে বিপর্যস্ত নেপালে নিহত বেড়ে ৭৭

নেপালে গত তিনদিনের ভারি বর্ষণে আকস্মিক বন্যা এবং ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৭ জনে দাঁড়িয়েছে। বুধবার নতুন করে আরও ৩৪ জনের মরদেহ উদ্ধারের পর দেশটির কর্তৃপক্ষ প্রাণহানির এই তথ্য জানিয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দিল কুমার তামাং বলেছেন, ভারত সীমান্ত লাগোয়া পূর্ব নেপালের পঞ্চথার জেলায় ২৪ জন এবং পার্শ্ববর্তী ইলমে ১৩ এবং দোতি জেলায় ১২ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া বাকিরা মারা গেছেন পশ্চিম নেপালের বিভিন্ন এলাকায়।

বন্যা এবং ভূমিধসে আরও ২২ জন আহত এবং ২৬ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। কর্তৃপক্ষ বলছে, দেশের  সরকার বন্যা এবং ভূমিধসে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে এক হাজার ৭০০ ডলার সহায়তা এবং সরকারের পক্ষ থেকে আহতদের চিকিৎসার ব্যয় বহন করা হবে।

টানা ভারি বর্ষণের কারণে দেশটির রাজধানী কাঠমাণ্ডু থেকে প্রায় সাড়ে ৩০০ কিলোমিটার পশ্চিমের সেতি গ্রামে বন্যায় গত দু’দিন ধরে আটকা পড়া ৬০ জনকে উদ্ধারের প্রচেষ্টা ব্যাহত হয়েছে।

দেশটির পুলিশের মুখপাত্র বসন্ত কুনওয়ার রয়টার্সকে বলেছেন, গতকাল থেকে অব্যাহত বৃষ্টিপাত এবং বৈরী আবহাওয়ার কারণে উদ্ধারকারীরা ওই গ্রামে পৌঁছাতে পারছেন না। তবে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা এখনও চলছে।

স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ধান এবং অন্যান্য ফসল পানিতে ডুবে গেছে। এছাড়া দেশজুড়ে নদ-নদীর পানি বেড়ে ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, সেতু ভাসিয়ে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি এবং ভূমিধসও হয়েছে। বিরাটনগর শহরের একটি বিমানবন্দরের রানওয়ে পানিতে তলিয়ে গেছে।

প্রত্যেক বছর বর্ষা মৌসুমে নেপালে আকস্মিক বন্যা এবং ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। সাধারণত জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রাকৃতিক এই দুর্যোগ শুরু হয়। কিন্তু চলতি বছরের অক্টোবরেও দেশটিতে বৈরী আবহাওয়া দেখা দিয়েছে।

নেপালের আবহাওয়া বিভাগ আগামী দুই দিনে দেশের কিছু কিছু স্থানে ভারি বৃষ্টি এবং পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি তুষারপাতের পূর্বাভাষ দিয়েছে। বর্ষণ-বন্যায় দুর্যোগপ্রবণ নেপালে প্রত্যেক বছর শত শত মানুষের প্রাণহানি ও হাজার হাজার নেপালি রুপির ক্ষয়ক্ষতি হয়ে থাকে।

এদিকে, ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্য উত্তরাখণ্ডের কর্মকর্তারা বলেছেন, গত কয়েকদিনের বর্ষণ, আকস্মিক বন্যা এবং ভূমিধসে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ৪৬ জনের প্রাণহানি ঘটেছে এবং নিখোঁজ রয়েছেন ১১ জন। কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয় বলেছেন, তার রাজ্যে মারা গেছেন ৩৯ জন

সূত্র: রয়টার্স, এএফপি।

এসএস

Link copied