আমিরাতে ড্রোন হামলায় নিহত ৩, বিমানবন্দরে আগুন

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ জানুয়ারি ২০২২, ০৫:২৬ পিএম


আমিরাতে ড্রোন হামলায় নিহত ৩, বিমানবন্দরে আগুন

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবু ধাবিতে তিনটি তেলবাহী ট্যাংকারে বিস্ফোরণে অন্তত ৩ জন নিহত হয়েছেন। সোমবারের এই বিস্ফোরণে আরও ৬ জন আহত এবং আবু ধাবি ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরের একটি নির্মাণ স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

ইয়েমেনের বিদ্রোহীগোষ্ঠী হুথি আমিরাতে ড্রোন হামলা চালানোর দাবির পর আবু ধাবি কর্তৃপক্ষ এই হতাহত এবং অগ্নিকাণ্ডের তথ্য নিশ্চিত করেছে।

আবু ধাবি পুলিশ বলছে, মুসাফফাহ শিল্পাঞ্চলের কাছে তেল কোম্পানি এডিএনওসির একটি গুদামের পার্শ্ববর্তী এলাকায় তিনটি তেলবাহী ট্যাংকার ট্রাকে বিস্ফোরণ ঘটেছে। এছাড়া আবু ধাবি ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরে একটি নির্মাণ স্থাপনায় আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

আমিরাতে ট্যাংকার বিস্ফোরণে নিহতদের দু’জন ভারতীয় এবং অন্যজন পাকিস্তানি প্রবাসী বলে দুবাই পুলিশ নিশ্চিত করেছে। তবে আহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। আহতরা হালকা অথবা মাঝারি জখম হয়েছেন।

বিস্ফোরণে হতাহতদের মধ্যে কোনও বাংলাদেশি আছেন কি-না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদসংস্থা ওয়াম দেশটির পুলিশের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে বলেছে, ‘প্রাথমিক তদন্তে উভয় স্থানে ছোট বিমানের কিছু অংশ পাওয়া গেছে; যা সম্ভবত ড্রোনের এবং এ কারণে বিস্ফোরণ ও আগুনের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।’ তবে এই ঘটনায় উল্লেখযোগ্য ক্ষয়ক্ষতি হয়নি এবং পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

এদিকে, ইয়েমেনে সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের বিরুদ্ধে হুথি বিদ্রোহীদের লড়াইয়ে নেতৃত্ব দিয়ে আসা এই গোষ্ঠীর সামরিক মুখপাত্র বলেছেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতের গভীরে একটি সামরিক অভিযান শুরু করেছে তারা। আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এ বিষয়ে বিস্তারিত ঘোষণা করা হবে।

সৌদি জোটের সদস্য হিসাবে ২০১৯ সালে ইয়েমেনে সামরিক উপস্থিতি অনেকাংশে কমিয়ে আনে সংযুক্ত আরব আমিরাত। তারপরও দেশটিতে সশস্ত্র ও প্রশিক্ষিত ইয়েমেনি বাহিনীর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখেছে আমিরাত।

ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে আচমকা এবং এলোপাতাড়ি হামলার জন্য দীর্ঘদিন ধরে বোমা বোঝাই ড্রোন ব্যবহার করে আসছে। সৌদি আরবের বিমানবন্দর, তেল স্থাপনা এবং তেল-গ্যাসের পাইপলাইনে প্রায়ই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় এই বিদ্রোহীগোষ্ঠী।

আমিরাত-সমর্থিত জায়ান্ট ব্রিগেডস এবং সৌদি আরবের বিমান বাহিনীর সহায়তায় ইয়েমেনের সরকারি বাহিনী দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় শাবওয়া প্রদেশ পুনরায় নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। চলতি মাসের শুরুর দিকে এই প্রদেশের নিয়ন্ত্রণ হুথিদের কাছ থেকে নেওয়ার পর ইয়েমেনের সামরিক বাহিনী পার্শ্ববর্তী মারিব প্রদেশের দিকে অগ্রসর হওয়ার দাবি করেছে।

এসএস

Link copied