পেনশনের টাকা পেতে মরদেহ নিয়ে অফিসে হাজির

Dhaka Post Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৪ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৩৪ পিএম


পেনশনের টাকা পেতে মরদেহ নিয়ে অফিসে হাজির

পেনশনের টাকা দিতে চাইছিলেন না অফিসের কর্মীরা। তাই পেনশনভোগীর মরদেহ চেয়ারে বসিয়ে সোজা সেখানে হাজির হলেন দুই যুবক। এমন ঘটনায় রীতিমতো হতভম্ব হয়ে যান অফিসের কর্মীরা। গত শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে আয়ারল্যান্ডে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মৃত ওই ব্যক্তির নাম পিডার ডয়েল। তিনি পোস্ট অফিস থেকে পেনশন পেতেন। যে দুই যুবক পিডারের মরদেহ নিয়ে পোস্ট অফিসে গিয়েছিলেন, তারা তার পূর্ব পরিচিত। পিডার মারা যাওয়ায় তার পেনশনের টাকা হাতানোর পরিকল্পনা করেছিলেন তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রথমে পিডারের আত্মীয় পরিচয় দিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব আয়ারল্যান্ডের কারলো শহরের পোস্ট অফিসে টাকা আনতে গিয়েছিলেন ওই দু’জন। কিন্তু পোস্ট অফিসের কর্মীদের সন্দেহ হওয়ায় তারা পিডারকে পোস্ট অফিসে নিয়ে আসতে বলেন।

Dhaka Post

এরপরই তারা পিডারের মরদেহ হুইলচেয়ারে বসিয়ে তাকে ভালো করে পোশাক, টুপি পরিয়ে সোজা পোস্ট অফিসে হাজির হন। প্রথম দেখাতে বোঝা সম্ভবই হয়নি যে, ওটা পিডারের মরদেহ। পিডারকে দেখিয়ে ফের টাকা দাবি করেন তারা।

পোস্ট অফিসেরই এক কর্মী খেয়াল করেন, চেয়ারে বসে থাকা পিডারের শরীরে কোনো নড়াচড়াই হচ্ছে না। এমনকি চোখও ছিল স্থির। বিষয়টি নজরে আসতেই পোস্ট অফিস থেকে পুলিশে ফোন করা হয়।

পোস্ট অফিসের কর্মীরা বিষয়টি আন্দাজ করতে পেরেছেন, এটা আঁচ করতে পেরেই পিডারের মরদেহ ফেলে পালিয়ে যান ওই দুই যুবক। অভিযুক্ত ওই দুই যুবকের বয়স ত্রিশের ঘরে।

Dhaka Post

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পিডারের মরদেহ উদ্ধার করে। অভিযুক্ত ওই দুই যুবককে খুঁজছে পুলিশ। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের ধারণা, পোস্ট অফিসে নেওয়ার মাত্র তিন ঘণ্টা আগে হয়তো মৃত্যু হয়েছে ৬৬ বছর বয়সী পিডারের।

এছাড়া মাদক কেনার টাকা সংগ্রহের জন্যই অভিযুক্তরা এই কৌশল অবলম্বন করেছিল বলেও অনুমান পুলিশের।

টিএম

Link copied