আমড়া খাওয়ার উপকারিতা

Dhaka Post Desk

লাইফস্টাইল ডেস্ক

০১ অক্টোবর ২০২২, ১২:১৭ পিএম


আমড়া খাওয়ার উপকারিতা

দেশীয় ফলগুলোর মধ্যে পরিচিত একটি হলো আমড়া। এটি অত্যন্ত সুস্বাদুও। আমড়া কাঁচা খাওয়া যায় আবার এটি দিয়ে নানা পদের খাবারও রান্না করা যায়। সহজলভ্য বলে অনেকে এর গুরুত্ব বোঝেন না। যে কারণে বঞ্চিত হন অনেক পুষ্টি থেকে। প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ভিটামিন ও অন্যান্য উপকারী বৈশিষ্ট্য রয়েছে আমড়ায়। এটি আপেলের চেয়ে কম উপকারী নয়। 

হজম ভালো রাখে

আমড়ায় থাকে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। যে কারণে আমড়া খেলে কোষ্টকাঠিন্য, বদহজমের মতো সমস্যা নিয়ন্ত্রণে থাকে। যে কারণে সুস্থ থাকা সহজ হয়। কারণ হজম ভালো হলে তার ইতিবাচক প্রভাব পড়ে শরীরের সবর্ত্রই।

মুখের রুচি বাড়ায়

অনেকেই আছেন যারা খাবারের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। পেটে ক্ষুধা থাকলেও মুখে রুচি না থাকার কারণে তারা তেমন কিছু খেতে পারেন না। এক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করতে পারে আমড়া। মুখে অরুচি হলে খেতে পারেন এই ফল। মরিচ আর কাসুন্দির সঙ্গে আমড়া মিশিয়ে খেলে মুখে রুচি ফিরে আসে খুব দ্রুত।

সর্দি-কাশি সারায়

আবহাওয়া পরিবর্তনের সময় অনেকেই সর্দি-কাশিতে ভুগে থাকেন। এছাড়া হঠাৎ ঠান্ডা লেগে কিংবা অ্যালার্জির কারণেও এমনটা হতে পারে। এই সমস্যা দূর করতে আমড়া খেতে পারেন। কারণ আমড়ায় থাকে প্রচুর ভিটামিন সি। তাই আমড়া খেলে সর্দি-কাশি থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে দ্রুতই। সেইসঙ্গে এটি শরীরে রক্তস্বল্পতার সমস্যাও দূর করে।

উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদরোগে উপকারী

যাদের উচ্চ রক্তচাপ এবং হৃদরোগের মতো জটিল অসুখের ভয় রয়েছে, তারাও নিশ্চিন্তে খেতে পারেন আমড়া। সুস্বাদ ও সহজলভ্য এই ফল খুব সহজে আপনাকে এ ধরনের অসুখ থেকে দূরে রাখবে। তবে আমড়া খালি পেটে কিংবা রাতের বেলা না খাওয়াই উত্তম।

হাড় ও দাঁত ভালো রাখে

আমাদের হাড় ও দাঁত ভালো রাখতে কাজ করে আমড়া। কারণ এতে থাকে পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম। যারা হাড় ও দাঁত নিয়ে সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য উপকারী একটি খাবার হতে পারে এই ফল। বর্তমানে অনেকেই এই সমস্যায় ভুগছেন, তাদের পাতে আমড়া থাকলে সুস্থ হবেন দ্রুতই। 

হবু মায়ের জন্য উপকারী

গর্ভধারণের সময়ে অনেক হবু মায়ের টক স্বাদের খাবার খেতে ইচ্ছা করে। এমন অবস্থায় চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে খেতে পারেন আমড়া। কারণ আমড়ায় থাকা পর্যাপ্ত পুষ্টি উপাদান হবু মা ও অনাগত শিশুর জন্য উপকারী। তবে চিকিৎসকের কোনো ধরনের নিষেধ থাকলে এই ফল খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

Link copied