শীতে বনভোজন? খাবারের ক্ষেত্রে যেসব বিষয়ে খেয়াল রাখবেন

Dhaka Post Desk

জান্নাতুন সোহা

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৩৮ পিএম


শীতে বনভোজন? খাবারের ক্ষেত্রে যেসব বিষয়ে খেয়াল রাখবেন

বনভোজনের জন্য শীতকাল সবচেয়ে উপযুক্ত। বছরের শেষ বলে শিশুদের ছুটি, আবার আবহাওয়াও থাকে সহায়ক। এমনকী খাবারের বিষয়েও খুব বেশি চিন্তা করতে হয় না। মশলাদার খাবারগুলো শীতে হজমে খুব একটা সমস্যা করবে না। পরিবার-পরিজন মিলে এই শীতে বনভোজনের কথা ভাবছেন কি? পরিকল্পনা কীভাবে সাজাবেন? বনভোজনের মূল আয়োজন যেহেতু খাবার নিয়ে তাই সেদিকে রাখতে হবে বিশেষ নজর। বনভোজনের পরিকল্পনা করার সময় খাবারের ক্ষেত্রে এই বিষয়গুলোর প্রতি নজর দিন-

যাতায়াতের সময়

যেখানে বনভোজন করতে যাচ্ছেন, সেখানে পৌঁছাতে কতক্ষণ লাগতে পারে তা আগে হিসাব করে নিন। যদি আগেভাগে পৌঁছে যেতে পারেন তবে স্পটে গিয়েই খাওয়া যাবে সকালের খাবার। আর যদি যেতে দেরি হয় তবে পথে বসেই খেতে হবে। আবার সেখানে পৌঁছাতে বেশি সময় লাগলে গিয়ে রান্না করা সম্ভব নাও হতে পারে।

রাঁধবেন নাকি কিনে খাবেন

বনভোজনের মূল আয়োজন খাওয়া হলেও, সবাই মিলে আনন্দ করার বিষয়টি থেকেই যায়। এখন আপনি যদি বনভোজনে গিয়ে আনন্দ-আড্ডায় অংশ না নিয়ে রাঁধতে বসে যান, তাহলে তো সেটি কোনো কাজের কথা নয়। সেজন্য এখন অনেকেই রান্নার বিষয়টি এড়িয়ে বরং খাবার অর্ডার করে আনিয়ে নেন। আপনারা কোনটি চাচ্ছেন, সেটি আগে ঠিক করে নিন। নিজেরাই রাঁধবেন নাকি অর্ডার করে দেবেন, সিদ্ধান্ত আগেই নিতে হবে।

শিশুরা থাকলে কী করবেন?

যারা বনভোজনে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে শিশু থাকলে খাবারের তালিকা তৈরির সময় সেটিও মাথায় রাখতে হবে। কারণ শিশুরা বড়দের মতো বেশি ঝাল-মশলার খাবার নাও খেতে পারে। তখন তাদের জন্য তাদের উপযোগী খাবারের ব্যবস্থা করতে হতে পারে। দলে কিশোর বয়সী থাকলে তাদের পছন্দের দিকেও খেয়াল রাখুন। এই বয়সে মানুষ একটু স্পাইসি খাবার খেতে বেশি পছন্দ করে। কারও কোনো খাবারে অ্যালার্জি বা চিকিৎসকের নিষেধ আছে কি না, তা জেনে নিন। নয়তো বনভোজনে গিয়ে তার খাবারে সমস্যা হতে পারে।

নাস্তায় কী থাকবে?

অনেকে বনভোজনের খাবারে কেবল মূল খাবারের দিকেই নজর দেন। এটি ঠিক নয়। মূল খাবারের পাশাপাশি খেয়াল রাখুন নাস্তার দিকেও। পর্যাপ্ত নাস্তার ব্যবস্থা রাখুন। সকাল বা বিকেলের খাবারে আবহাওয়ার উপযোগী নাস্তার ব্যবস্থা করতে পারেন।

গুরুত্ব দিন সবার পছন্দকে

বেশিরভাগ যেসব খাবার খেতে পছন্দ করেন, বনভোজনের ক্ষেত্রে সেসব খাবারকে প্রাধান্য দিন। কারণ এতে খাবার নিয়ে ঝামেলা কম হবে। একেকজনের পছন্দমতো একেক খাবার তৈরি করতে যাবেন না। এতে আয়োজনের পুরো সময়টা খাবারের পেছনে ব্যয় করতে হবে। তাই বনভোজনে যারা থাকছেন, তাদের পছন্দটা আগে জেনে নিন।

Link copied